রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

ফের মস্তানি ময়দানে, ইস্টবেঙ্গলের শতবর্ষের গেট ভাঙল একদল মোহন সমর্থক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের হিংসা। ফের মস্তানি ময়দানে। শতবর্ষ উপলক্ষ্যে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের ঢোকার রাস্তা লেসলি ক্লডিয়াস সরণির মুখে যে অস্থায়ী তোরণ করা হয়েছিল, তা ভেঙে দিল একদল উন্মত্ত মোহনবাগান সমর্থক। আর এই ঘটনায় নিন্দার ঝড় ময়দানে।

এ দিন ডুরান্ড কাপের খেলা ছিল মোহনবাগানের। এটিকের বিরুদ্ধে ২-১ গোলে জেতে বাগান। অভিযোগ, খেলা ভাঙার পর মোহনবাগান মাঠ থেকে বেরিয়েই ওই সমর্থকরা চলে আসেন ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের ঢোকার রাস্তার মুখে। তারপর চলে গুণ্ডামি। ছিঁড়ে দেওয়া হয় ফ্লেক্স।

এই ঘটনায় কড়া নিন্দা করেছেন মোহনবাগান কর্তা তথা প্রাক্তন ফুটবলার সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “এই কাণ্ড যাঁরা করেছেন, তাঁরা কেউ ফুটবলের সমর্থক নন। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। মোহনবাগানের সঙ্গে এঁদের নাম না জড়ানোই উচিত।” ইস্টবেঙ্গল কর্তা নিতু সরকার বলেন, “এই ঘটনা যারা ঘটিয়েছে, তাদের সমর্থক না বলাই ভাল। এদের চিহ্নিত করে শাস্তি দেওয়া হোক।” মোহনবাগান ক্লাবের তরফে ইস্টবেঙ্গলের সচিব কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাতে চিঠিও লেখা হয়েছে। সবুজ-মেরুন কর্তারাই ওই সমর্থকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন ময়দান থানায়।

২০১৭ সালে মহালয়ার দিন ঘরোয়া লিগে টালিগঞ্জের বিরুদ্ধে নেমেছিল ইস্টবেঙ্গল। সে দিন টালিকে পাঁচ গোল দেওয়ার পর এক দল ইস্টবেঙ্গল সমর্থক মোহনবাগান ক্লাবের বাইরে একই ঘটনা ঘটিয়েছিল। ঢিল মেরে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল মোহনবাগান ক্লাবের গেটের কাচ। ওই ঘটনার নিন্দা করার পর সবুজ-মেরুন তাঁবুতে ছুটে গিয়েছিলেন লাল-হলুদ কর্তারা। এখন দেখার মোহনবাগান কর্তারা কী করেন।

Comments are closed.