সোমবার, অক্টোবর ১৪

অষ্টমীর সন্ধ্যায় ভাসবে শহর, ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নামবে জেলায় জেলায়, মনখারাপের খবর দিল আবহাওয়া দফতর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঝলমলে অষ্টমীর সকাল দেখে সন্ধ্যার প্ল্যানিং যাঁরা করে রেখেছেন, তাঁদের মন খারাপের খবর শোনাল আবহাওয়া দফতর। ঝাড়খণ্ডে ঘূর্ণাবর্তের জেরে পুজোর চারদিনই বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করেছিল হাওয়া অফিস। সপ্তমীর সকালে আকাশের মুখ ভার করে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নেমেছিল কলকাতা ও তার সন্নিহিত এলাকায়। তবে বিকেলের পর থেকে ব্যাকফুটে খেলে রণে ভঙ্গ দেয় বৃষ্টি। আবহবিদরা জানিয়েছেন, ফের তার দাপট দেখানোর সময় চলে এসেছে। অষ্টমীর সন্ধ্যা তো বটেই, নবমী-দশমীতেও ছাড় নেই। মুষলধারায় বৃষ্টিতে ভাসতে পারে কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গ। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ঝাড়খণ্ডের উপর একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি সক্রিয় মৌসুমী বায়ুও। যেহেতু বর্ষার সময়কালের মধ্যে এ বছর পুজো পড়েছে, তাই বৃষ্টির আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। তার উপরে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় মাঝেমধ্যে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নামার সম্ভাবনা প্রবল।

সপ্তমীর সকালেই কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা এবং হাওড়ার বিভিন্ন জায়গায় প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে বৃষ্টি হয়েছে। হাওড়ার কোথাও কোথাও বৃষ্টির জেরে জলও জমে গিয়েছিল। আবহবিদরা জানিয়েছেন, মালদা, দুই দিনাজপুর, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম জেলায় বেশি বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা।

তবে বৃষ্টির ভ্রুকুটি উপেক্ষা করে সপ্তমীতেই উত্তর, দক্ষিণ এবং মধ্য কলকাতার প্রায় প্রতিটি মণ্ডপে উপচে পড়েছিল ভিড়। ছাতা মাথায় সকাল থেকেই সকাল থেকেই মণ্ডপে মণ্ডপে ভিড় জমাতে দেখা গিয়েছিল আট থেকে আশিকে। কাজেই বৃষ্টির চোখরাঙানি যে  অষ্টমী, নবমী বা দশমীতে  উদ্যমী বাঙালিকে দমিয়ে রাখতে পারবে না, সেটা বলাই বাহুল্য।

Comments are closed.