সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩

জোম্যাটোর হয়ে খাবার দিতে এসে ‘গোরি তেরা গাঁও বড়া পেয়ারা’, ভিডিয়ো ভাইরাল

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ইচ্ছে ছিল গায়ক হবেন। কিন্তু ভাগ্য তাঁকে সে দিকে নিয়ে যায়নি। হয়েছেন জোম্যাটোর ডেলিভারি বয়। কিন্তু তাতে স্বপ্নটা মরে যায়নি। আর তাই নিজের প্রোফাইলে সে কথা লিখেওছিলেন ওই ডেলিভারি বয়। তিনি হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি, সেই ইচ্ছের কথা দেখে কেউ এমন ঘটনা ঘটাবে যাতে রাতারাতি সোশ্যাল মিডিয়াতে সবাই চিনবে তাঁকে।

জোম্যাটোতে খাবারের অর্ডার দেওয়ার পরেই ডেলিভারি বয়ের প্রোফাইল দেখে কিছুটা অবাক হয়েছিলেন অসমের বাসিন্দা অনির্বাণ চক্রবর্তী। প্রোফাইলে লেখা ডেলিভারি বয় প্রাণজিৎ হালোই-এর স্বপ্ন একদিন গায়ক হবেন তিনি। তাঁর ইচ্ছে পূরণ করতে না পারলেও তাঁকে দিয়ে গান গাইয়ে তা লাইভ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাতারাতি এই ডেলিভারি বয়কে সেনসেশন বানিয়ে দিয়েছেন অনির্বাণ। ইতিমধ্যেই সবাই তারিফ করছেন তাঁরা গানের।

নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে ওই গানের ভিডিয়ো প্রকাশ করেন অনির্বাণ। সেখানে দেখা যাচ্ছে ১৯৭৬ সালের ‘চিতচোর’ ছবির ‘গোরি তেরা গাঁও বড়া পেয়ারা’ গাইছেন প্রাণজিৎ। তলায় পুরো ঘটনার বিবরন দেন অনির্বাণ। তিনি লেখেন, “আমার সব বন্ধুদের সামনে প্রাণজিৎ হালোই ( জোম্যাটর ডেলিভারি বয় যে খাবার দিতে এসেছিল )। আমি ওর প্রোফাইলে দেখেছিলাম, ও একদিন গায়ক হতে চায়। তাই আমি পরিকল্পনা করে ওকে গাইতে বলে তার ভিডিয়ো সবাইকে দেখালাম। আমি সবাইকে অনুরোধ করব, সবাই যেন ওর স্বপ্ন পূরণ করতে ওকে সাহায্য করে।”

এই ভিডিয়ো শেয়ার করার পর মুহূর্তের মধ্যে তা ভাইরাল। সবাই প্রাণজিতের সুরেলা কণ্ঠের প্রশংসা করেছেন। কোনও প্রস্তুতি ছাড়া হঠাৎ করে খালি গলায় তাঁর গান মন ছুঁয়েছে সবার। আর তাই কয়েক ঘণ্টাতেই এই গানের শেয়ার হয়েছে প্রায় ১০ হাজার।

Comments are closed.