শনিবার, মে ২৫

২০০০ টাকার নোট তুলতে মেট্রো লাইনে ঝাঁপ, ট্রেনের তলায় চলে গেলেন তরুণী, তারপর…

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হাত ফসকে পড়ে যাওয়া ২০০০ টাকার নোট বাঁচাতে গিয়ে কেউ যে মেট্রো লাইনে ঝাঁপ দিতে পারে, সেটা হয়তো কল্পনাও করেননি ট্রেনের জন্য অপেক্ষারত বাকি যাত্রীরা। লাইনে তখন দুরন্ত গতিতে ছুটে আসছে ট্রেন। নোট হাতে লাইনের মাঝে খাবি খাচ্ছেন তরুণী। তাঁর মাথার উপর দিয়ে সাঁই সাঁই করে ছুটে গেল ট্রেনের দু’টি কোচ। এর পরের কয়েকটা মিনিট স্টেশন জুড়ে অপার নিস্তব্ধতা, পিন পড়লেও যেন শব্দ শোনা যায়।

ঘটনা দিল্লির দ্বারকা মোর মেট্রো স্টেশনের। মঙ্গলবার সকালে এক তরুণীর এমন বেপরোয়া কাণ্ড কারখানায় রীতিমতো ঘুম উড়ে গিয়েছিল স্টেশনের বাকি যাত্রী ও সিআইএসএফের (সেন্ট্রাল ইনডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স)। ট্রেন চালকের অবস্থাও ছিল তথৈবচ। তবে না, তরুণীর বিশেষ কিছুই হয়নি। ট্রেন চলে যাওয়ার পর লাইন থেকে দিব্যি নোট হাতে উঠে এসেছিলেন তিনি।

রাখে হরি মারে কে! প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজনের বয়ান এমনই। তাঁরা কথায়, মঙ্গলবার সকালে ব্যস্ত সময় স্টেশনে তখন গাদাগাদি ভিড়। বছর ছাব্বিশের ওই তরুণীও ট্রেন ধরবেন বলে অপেক্ষা করছিলেন। আচমকাই তাঁর হাত ফসকে ২০০০ টাকার একটি নোট লাইনে পড়ে যায়। সেটি তুলতে লাইনে নামার চেষ্টা করতেই চেপে ধরেন বাকি যাত্রীরা। তবে তরুণী বেপরোয়া। টাকা তাঁকে তুলতেই হবে। আস্ত ২০০০ টাকা ট্রেনের চাকার তলায় যাবে, নৈব নৈব চ!

মেট্রো লাইনে নেমে টাকা কুড়নোর মাঝেই চলে আসে ট্রেন। লাইন থেকে উঠতে না পেরে পরিত্রাহী চিৎকার জুড়ে দেন তরুণী। ব্যাপার দেখে ছুটে আসেন স্টেশন কন্ট্রোলার ও সিআইএসএফের কর্তারাও। লাইনে এক মহিলাকে দেখে ট্রেন চালকও তখন ব্রেক কষেছেন। কিন্তু ততক্ষণে ট্রেনের দু’টি কোচ তরুণীর উপর দিয়ে চলে গেছে। ভয়ে চোখ বন্ধ করে ফেলেন স্টেশনের অনেকেই।

লাইন থেকে তরুণী যখন উঠে আসেন তখন তাঁর হাত, পাও কাঁপছে। তবে হাতে সাপটে ধরা ছিল টাকাটা। তরুণী জানিয়েছেন, বাঁচার আর কোনও রাস্তা না দেখে লাইনে সটান শুয়ে পড়েছিলেন তিনি। ট্র্যাকের মাঝের ফাঁকা জায়গায় হাত-পা যতটা সম্ভভ শরীরের সঙ্গে সেঁধিয়ে টানটান হয়ে যান। ফলে ট্রেনের কোনও অংশই তাঁর শরীর স্পর্শ করেনি।

সিআইএসএফের কাছে ক্ষমা চেয়ে, চিঠি লিখেই আপাতত ছাড়া পেয়েছেন তিনি।

 

Shares

Comments are closed.