বৃহস্পতিবার, মার্চ ২১

‘কাশ্মীরিদের ক্ষতি হলে অন্য রাজ্যের লোকেদের ধরে ধরে মারবো’, হুঁশিয়ারি হিজবুল কম্যান্ডারের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: “কোনও কাশ্মীরির যদি ক্ষতি হয় তাহলে বদলা নেবো। এ রাজ্যে বাইরে থেকে এসে যারা শ্রমিকের কাজ করে, তাদের ধরে ধরে মারবো।” ১৭ মিনিটের অডিও ক্লিপে এ বার ভয়ানক হুমকি দিল জম্মু ও কাশ্মীরের বৃহত্তম জঙ্গি সংগঠন হিজবুল মুজাহিদিন।

হিজবুলের অপারেশনাল কম্যান্ডার রিয়াজ নাইকু একটি অডিও বার্তায় সাফ জানিয়েছে, দেশের যে প্রান্তেই সাধারণ কাশ্মীরিরা আক্রান্ত হবেন তার বদলা নেওয়া হবে। কাশ্মীরে থাকা বাইরের বিভিন্ন প্রদেশের শ্রমিকদের জানে মেরে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছে রিয়াজ। রিয়াজের কথায়, “মনে রাখবেন যদি কাশ্মীরিদের সঙ্গে খারাপ কিছু হয়, তাহলে এখানে কাজ করতে আসা অন্য শ্রমিকরা বেঁচে ফিরবে না।”

পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলার পরেই জইশের গোপন ডেরা উড়িয়ে দিয়েছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। সেনার হাতে খতম হয় পুলওয়ামা হামলার মাস্টারমাইন্ড কামরান। বাকি জঙ্গিদের খোঁজেও চলছে ধরপাকড়। আর তাতেই বেজায় ক্ষুব্ধ হিজবুল কম্যান্ডার রিয়াজ। তার কথায়, পুলওয়ামার থেকেও ভয়ঙ্কর ফিদায়েঁ হামলার জন্য প্রস্তুত হিজবুল।

ওই অডিও বার্তাতেই রিয়াজ নাইকু জানিয়েছে, দাসত্বের তুলনায় মৃত্যু তাদের কাছে শ্রেয়। আর সে জন্যই মরতে তাদের ভয় নেই। নাইকুর কথায়, “সে দিন আর দূরে নেই, যে দিন আমাদের ১৫ বছরের ছেলেরাও গায়ে বোমা বেঁধে তোমাদের সেনার কনভয়ে আবার হামলা করবে।”

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের অবন্তীপোরার কাছে লেথপোরায় ৪৪ নম্বর শ্রীনগর-জম্মু হাইওয়েতে সিআরপিএফ-এর কনভয়ে হামলা চালায় পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ। আত্মঘাতী জঙ্গি হানায় শহিদ হন ৪০জন সিআরপিএফ জওয়ান। আর তারপর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে হেনস্থার শিকার হচ্ছেন সাধারণ কাশ্মীরিরা। কোথাও শাল বিক্রেতা তো কোথাও চিকিৎসক, রেহাই পাচ্ছেন না কেউই। বিভিন্ন জায়গায় হস্টেল থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে কাশ্মীরি ছাত্রদের। সেই প্রসঙ্গেই এ বার হুমকি দিল হিজবুল মুজাহিদিন।

আরও পড়ুন

কাশ্মীরিদের হেনস্থা হওয়া নিয়ে ফের মুখ খুললেন মমতা

Shares

Comments are closed.