সোমবার, নভেম্বর ১৮

শৈশবে আমিষ খেলে বড় হয়ে নরখাদক! বিস্ফোরক বাণী বিজেপি নেতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছোটবেলা থেকে আমিষ খাবার খেলে নরখাদকে পরিণত হবে মানুষ, সম্প্রতি এমনটাই দাবি করেছেন বিজেপি নেতা গোপাল ভার্গব।

মধ্যপ্রদেশ সরকারের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মিড-ডে মিলে স্কুলের বাচ্চাদের ডিম দেওয়া হবে। সেই প্রসঙ্গেই গোপাল ভার্গব বলেছেন, ছোট থেকে আমিষ খেলে নরখাদক হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে বাচ্চাদের মধ্যে। বুধবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ওই বিজেপি নেতা বলেন, “ভারতীয় সংস্কৃতিতে আমিষ খাওয়া নিষিদ্ধ। সেক্ষেত্রে যদি ছোটবেলা থেকেই আমিষ খাওয়ার অভ্যাস থাকে তাহলে বড় হয়ে না বাচ্চারা নরখাদক তৈরি হয়।” এখানেই থামেননি ভার্গব। মধ্যপ্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে তিনি বলেছেন, “এমন অপুষ্ট সরকারের থেকে আর কীই বা আশা করা যায়। এরা তাদেরকেও জোর করে ডিম খাওয়াতে চায় যারা খেতে ইচ্ছুক নয়। কে কী খাবে সে ব্যাপারে আমরা কিন্তু কাউকে জোর করতে পারি না।”

মধ্যপ্রদেশের নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী ইমারতি দেবী বুধবার জানিয়েছেন, সে রাজ্যের সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ বার থেকে স্কুলের মিড-ডে মিলে মেনুতে থাকবে ডিম। শিশুরা যাতে সঠিক পুষ্টি পায় সেজন্য নভেম্বর মাস থেকেই এই প্রকল্প চালু হবে মধ্যপ্রদেশে। এরপরেই এমন বেফাঁস মন্তব্য করেছেন গোপাল ভার্গব। তাঁর মন্তব্যের পাল্টা ইমারতী দেবী বলেন, “অপুষ্টিতে ভোগা শিশুদের যেসব ডাক্তাররা চিকিৎসা করেন তাঁরা বলেছেন ডিম এ ধরনের বাচ্চাদের সুস্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। অতএব ডিম খাওয়া ভালো। আর ডিম মোটেও আমিষ খাবার নয়। বরং এটা নিরামিষ খাবার। তাই বাচ্চাদের এ বার থেকে মিড-ডে মিলে ডিম খাওয়ানো হবে।”

বেফাঁস মন্তব্য করার ক্ষেত্রে বিজেপি নেতাদের জুড়ি মেলা ভার। পরিস্থিতি এমন যে এ বলে আমায় দ্যাখ তো ও বলে আমায়।ত্রিপুরের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব দাবি করেছিলেন মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট ছিল। আবার সাধ্বী প্রজ্ঞার দাবি, গোমূত্র খেলেই সেরে যায় ক্যানসার। এই তালিকায় রয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। ২০১৪ সালের গণপতি উৎসবে মোদী বলেছিলেন প্লাস্টিক সার্জারির প্রথম নিদর্শন গণেশ। নিউটনের বদলে আইনস্টাইনকে দিয়েই মাধ্যাকর্ষণ শক্তি আবিষ্কার করিয়েছিলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। আপেল গাছের নীচে বসে আপেল পড়া দেখে স্যার আইজ্যাক নিউটন মাধ্যাকর্ষণ তত্ত্ব আবিষ্কারের অনেক আগে এ কথা বলা হয়েছিল ভারতীয় শাস্ত্রেই, এমন মন্তব্য করছিলেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। এবার বিজেপি নেতাদের এই বেফাঁস মন্তব্যের তালিকায় জুড়ল গোপাল ভার্গবের নামও। 

পড়ুন ‘দ্য ওয়াল’ পুজো ম্যাগাজিন ২০১৯ – এ প্রকাশিত গল্প

শেষ ট্রাম

Comments are closed.