রবিবার, অক্টোবর ২০

ট্রেনে অসমিয়া হস্তশিল্পের ছোঁয়া, যাবে ডিব্রুগড় থেকে সুদূর কন্যাকুমারী

অমিতাভ বন্দ্যোপাধ্যায়

বৃহস্পতিবার দিল্লিতে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস বা ট্রেন-১৮-এর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুধু এই ট্রেনই নয়, একই সঙ্গে বেশ কিছু নতুন যাত্রী-বান্ধব ট্রেনও লাইনে নামাল রেল মন্ত্রক। রেলের ‘উৎকৃষ্ট’ প্রকল্পের অধীনে এ দিন উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলেও একটি গুরুত্বপূর্ণ ট্রেনের রেককে নবরূপে সাজিয়ে গুজিয়ে লাইনে দেওয়া হল।

উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের সূত্রে জানা গিয়েছে, কামরাগুলির ভিতরে বায়ো টয়লেট থেকে শুরু করে এলইডি লাইটিং-এর ব্যবস্থা থাকছে। দেওয়া হয়েছে বিশেষ অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থাও। যাত্রীদের আনন্দ দিতে রাখা হয়েছে, বিশেষ বালিশ, চাদর এবং কম্বল। যাতে অসমের হস্ত শিল্পের ছোঁয়াও পাওয়া যাবে।

যে ট্রেনটির রেককে নতুন ভাবে সাজান হলো, সেটি হচ্ছে ডিব্রুগড় থেকে কন্যাকুমারী পর্যন্ত যাতায়াত করা ‘বিবেক এক্সপ্রেস’। এই ট্রেনটি একবার যাতায়াতে মোট ৪২৭৩ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করবে। রেল কর্তারা জানিয়েছেন, এটি দেশের দীর্ঘতম পথ অতিক্রম করা ট্রেন। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের ঘোষণা করা ‘উৎকৃষ্ট’ প্রকল্পের অধীনে আরও কয়েকটি রেকের কাজও চলছে। সেগুলিকেও নতুন ভাবে যাত্রীদের সামনে শিগগির নিয়ে আসা হবে হলে জানিয়েছেন, উত্তর-পূর্বে সীমান্ত রেলের কর্তারা।

আরও পড়ুন

‘দরকার পড়লে ছোট ছেলেকেও যুদ্ধে পাঠাবো’, চোখে জল, বুকে গর্ব নিহত জওয়ানের বাবার

Comments are closed.