শুক্রবার, নভেম্বর ১৫

গডম্যান ‘কল্কি’ ভগবানের ডেরায় আয়কর হানা, ৫০০ কোটির বেশি বেআইনি সম্পত্তির হদিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গডম্যান ‘কল্কি’ ভগবানের একাধিক ডেরায় হানা দিলেন আয়কর বিভাগের আধিকারিকরা। এই হানায় ৫০০ কোটি টাকার বেশি বেআইনি সম্পত্তির হদিশ পাওয়া গিয়েছে। উদ্ধার হয়েছে ডোনেশনের রসিদ, সোনা, হিরে।

আয়কর দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, এই হানায় ৪০৯ কোটি টাকার রসিদ উদ্ধার হয়েছে। অথচ এই টাকার উল্লেখ কোথাও নেই। এই হানায় ৪৩.৯ কোটি টাকা, ১৮ কোটি টাকার মার্কিন ডলার উদ্ধার হয়েছে। এ ছাড়া সোনা, হিরে মিলিয়ে মোট ৯৩ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এই হানায় জানা গিয়েছে এই সব টাকা নেওয়া হত বিভিন্ন আধ্যাত্মিক ক্লাসের জন্য। চেন্নাই, হায়দরাবাদ, ব্যাঙ্গালোর ও অন্ধপ্রদেশের একাধিক জায়গায় এই সেন্টার খোলা হয়েছিল। সব মিলিয়ে ৪০টি জায়গায় হানা দিয়েছিলেন আয়কর আধিকারিকরা। এখনও এই তল্লাশি চলছে বলেই জানানো হয়েছে।

আয়কর দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আধ্যাত্মিক শিক্ষা দেওয়ার নামে এই টাকা নেওয়া হত। শুধু দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে নয়, বিদেশ থেকেও প্রচুর টাকা আসত। এই কাজে নিযুক্ত ছিলেন অনেক লোক। তাঁরা টাকা নিয়ে রসিদ কেটে সব রসিদ একটা কেন্দ্রে এসে জড়ো করতেন।

শুধুমাত্র আধাত্মিক ক্লাস নয়, কল্কি ভগবানের এই সংস্থা রিয়েল এস্টেট ও আরও অন্যান্য কাজেও যুক্ত ছিল বলে জানা গিয়েছে। চিন, আমেরিকা, সিঙ্গাপুর ও দুবাইয়েও এই সংস্থার একাধিক সম্পত্তি আছে বলে জানা গিয়েছে। সব কিছুই কল্কি ভগবান ও তাঁর ছেলের নামে আছে বলে জানিয়েছে আয়কর দফতর।

যদিও এখনও পর্যন্ত এই হানার সময় কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে অনেক কর্মীকেই জেরা করা হচ্ছে। এখনও নিজেদের তল্লাশি চালাচ্ছে আয়কর। যে ৪০৯ কোটি টাকার রসিদ পাওয়া গিয়েছে তা কোথায় আছে তা জানার চেষ্টা করছেন আয়কর আধিকারিকরা। সেই হদিশ পাওয়া গেলেই গডম্যানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবে আয়কর বিভাগ, এমনটাই জানানো হয়েছে।

পড়ুন দ্য ওয়াল-এর পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

Comments are closed.