শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

চিদম্বরমের সহমর্মিতায় টুইট শশীর, শব্দের মানে খুঁজতে জান কাহিল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গ্রেফতারি মামলায় শশী তারুর খানিক স্বস্তি পেলেন বটে। তবে আজ তিনি সে জন্য আলোচনার শীর্ষে নেই। বরং রয়েছেন তাঁর অদ্ভুত শব্দ চয়নের জন্য। যার মানে খুঁজতে কালঘাম ছুটে যাবে আপনার।

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেস সাংসদ শশী তারুর মন্তব্য করেছিলেন, বিজেপি ভারতকে ‘হিন্দু পাকিস্তান’ বানাতে চাইছে। গত বছর জুলাই মাসে করা শশীর সেই মন্তব্য নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। কলকাতায় শশী তারুরের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছিল। সেই মামলাতেই তাঁর বিরুদ্ধে জামিন যোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল ব্যাঙ্কশাল আদালত। বৃহস্পতিবার সেই মামলায় তাঁকে স্থগিতাদেশ দিয়েছে আদালত।

তবে সে সব নিয়ে কোনও চর্চাই নেই বাজারে। বরং নেট দুনিয়ায় নিজের নতুন অদ্ভুত শব্দ চয়নের জন্য ট্রেন্ডিং এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ। টুইটে বরাবরই সপ্রতিভ শশী তারুর। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই সব টুইট মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়, কারণ প্রতিবারই কোনও না কোনও অদ্ভুত ইংরেজি শব্দের ব্যবহার করেন তিনি। এ বারও তার অন্যথা হয়নি। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদম্বরমের গ্রেফতারির পর পুরনো সহকর্মীর সমর্থনে বুধবার রাতেই একটি টুইট করেছেন শশী তারুর। আর স্বভাবসুলভ ভাবেই সেই টুইটেও ব্যবহার করেছেন এক অদ্ভুত শব্দ ‘Schadenfreude’।

এর মানে খুঁজতে ইতিমধ্যেই অভিধান ঘেঁটে ফেলেছেন শশী তারুরের অনুগামীদের অনেকেই। প্রকৃত অর্থ বের করতে গিয়ে মাথার চুল ছেঁড়ার জোগাড় তাঁদের। উচ্চারণ করতেও দাঁত ভাঙার অবস্থা। জানা গিয়েছে, Schadenfreude শব্দটি আদতে একটি জার্মান অরিজিন শব্দ। অক্সফোর্ড ডিকশনারি অনুযায়ী Schadenfreude শব্দের বাংলা মানে অনেকটা ওই ‘কারও পৌষমাস তো কারও সর্বনাশ’-এর সমতুল্য। সহজ কথায় বললে অন্যের সমস্যায় আনন্দ পাওয়া।

চিদম্বরমের গ্রেফতারির পর শশী টুইটে চিদম্বরমকে কুর্নিশ জানিয়েছেন তাঁকে হেনস্থা ও তাঁর চরিত্র হননের চেষ্টার বিরুদ্ধে সাহস ও আত্মবিশ্বাস নিয়ে রুখে দাঁড়ানোর জন্য। সেই প্রসঙ্গেই তিনি আরও বলেন, আমি বিশ্বাস করি শেষ পর্যন্ত সুবিচারের জয় হবে। ততদিন পর্যন্ত দুষ্ট মনের কিছু মানুষের schadenfreude (অন্যের সর্বনাশে আনন্দ পাওয়ার মনোভাব)-কে আমাদের সহ্য করতে হবে।

Comments are closed.