শনিবার, অক্টোবর ১৯

সেনাবাহিনীতে নাম লেখানোর ভিড় কাশ্মীরে, আবেদন জমা পড়েছে ২৯ হাজার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘ভারত মাতা কি জয়’ বলে সেনাবাহিনীতে নাম লেখানোর হিড়িক পড়ে গেছে তরুণদের মধ্যে। উপত্যকায় সশস্ত্র বাহিনীতে নিয়োগও চলছে। সেনা সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই গোটা দেশ থেকে আবেদন জমা পড়েছে কম করেও ২৯ হাজার। আশ্চর্যের বিষয় হলো আবেদনকারীদের অধিকাংশই কাশ্মীরি।

গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে কাশ্মীরের রিয়াসি টাউনে চলছে সেনা নিয়োগের প্রক্রিয়া। সূত্রের খবর, আবেদনকারীদের বয়স ১৭-২১ বছরের মধ্যে। সেনার এক শীর্ষ আধিকারিকের কথায়, কাশ্মীরের কিস্তওয়ার, ডোডা, রম্বন, উধমপুর, রিয়াসি, রাজৌরি ও পুঞ্জ থেকে সবচেয়ে বেশি আবেদন জমা পড়েচে। তা ছাড়া, দেশের অন্যান্য শহর তো রয়েছেই। শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের নানা রেজিমেন্টাল সেন্টারে পাঠানো হয়েছে প্রশিক্ষণের জন্য। অন্তত হাজারের বেশি তরুণকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

“কাশ্মীরে পাথর ছোড়া বন্ধ করতে চাই। দেশের সেবা করার স্বপ্ন আমার ছোটোবেলা থেকেই। পরিবারের ভরণপোষণও একটা বড় ব্যাপার,” সেনা দলে যোগ দিয়ে জানিয়েছেন এক কাশ্মীরি যুবক।

অগস্টের ৫ তারিখে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা তুলে নেয় কেন্দ্র। জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করে। তারপর থেকেই গোটা উপত্যকা জুড়ে হাজারও বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রশাসন। বন্ধ হয়ে যায় মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা। উত্তেজনার ওই আবহেও সেনা দলে নাম লেখানোর ভিড় বাড়তে থাকে। গত ৩১ অগস্ট কাশ্মীরের বিভিন্ন জেলা থেকে মোট ৫৭৫ জন যুবক সেনাবাহিনীতে যোগ দেয়। তাঁদের লাইট ইনফ্যান্টরিতে পোস্টিং দেওয়া যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে সেনার তরফে।

Comments are closed.