মথুরার ‘ছপ্পন ভোগ’ এ বার উৎসর্গ ইসরোকে

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরবর্তী চন্দ্রাভিযানের সাফল্য কামনায় চলতি বছর মথুরার বিখ্যাত ‘ছপ্পন ভোগ’ উৎসর্গ করা হয়েছে ইসরোকে। শুক্রবার সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হয়েছে এ কথা। শ্রী গিরিরাজ সেবা সমিতির কর্ণধার এবং সভাপতি মুরারি আগরওয়াল জানিয়েছেন, প্রায় লক্ষাধিক পুণ্যার্থীর উপস্থিতিতে এই কথা ঘোষণা করা হয়। অনুষ্ঠানে সপরিবারে উপস্থিত ছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানী কে সিদ্ধার্থ।

    প্রতি বছরই মথুরায় আয়োজন করা হয় ‘মহা অভিষেক’ অনুষ্ঠান। মহা সাড়ম্বরে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজির হন অগণিত ভক্ত। ভগবান শ্রী কৃষ্ণকে সন্তুষ্ট করার জন্য ৫৬ রকম নৈবেদ্য সাজিয়ে দেওয়া হয়। শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থান মথুরা। তাই সেখানেই এই ভোগের আয়োজন করেন ভক্তরা। কথিত আছে এই প্রথা চলে আসছে দ্বাপর যুগ থেকে।

    মুরারি আগরওয়াল জানিয়েছেন, এই ‘ছপ্পন ভোগ’ তৈরির জন্য ঘি-সহ ২১ হাজার কেজির উপকরণ ব্যবহার হয়। আর ভোগ রান্না করার জন্য কারিগর আনা হয়  লখনউ, আগরা, ইন্দোর, রথলাম ও মাদুরাই থেকে। প্রতি বছর তিনদিন ধরে চলে উৎসব। এ বছর ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছিল এই উৎসব। শেষদিন অর্থাৎ শুক্রবার আয়োজন করা হয়েছিল ‘ছাপ্পান্ন ভোগ’-এর। প্রথা মেনে প্রতি বছরই গোবর্ধন পর্বতকে ঘিরে রথে করে কৃষ্ণের মূর্তি নিয়ে শোভাযাত্রা বের করেন ভক্তরা। সঙ্গে থাকে ৫৬ রকমের ভোগের ডালাও।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More