TheWall

উন্নাওয়ের নারকীয়তা ফের উত্তরপ্রদেশে, ধর্ষণ করে জ্যান্ত জ্বালিয়ে দিল তরুণীকে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উন্নাওয়ের ভয়াবহতার রেশ এখনও টাটকা। আবারও পুনরাবৃত্তি হল সেই নৃশংসতার। ধর্ষণ করে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা হল তরুণীকে। ঘটনাস্থল সেই উত্তরপ্রদেশ।

পুলিশ জানিয়েছে, উন্নাওয়ের তরুণীর নারকীয় হত্যাকাণ্ড নিয়ে যখন তোলপাড় হচ্ছে দেশ, গাফিলতির অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে সাত পুলিশকর্মীকে, সেই সময়েই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে ফতেপুর জেলায়। এক তরুণীকে ধর্ষণ করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে জ্বালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে তাঁরই এক আত্মীয়।

কানপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তরুণীর। শরীরের ৯০ শতাংশই পুড়ে গেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তরুণীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নির্যাতিতার বাবা জানিয়েছেন, বাড়িতে একা পেয়ে তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করে তাঁদেরই এক দূর সম্পর্কের আত্মীয়। পরে তরুণীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা হয়। চিৎকার শুনে ছুটে এসে তরুণীকে উদ্ধার করেন এলাকার লোকজন। খবর যায় পুলিশে।

আরও পড়ুন: পশ্চিমবঙ্গ কি রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে এগোচ্ছে? এই সংঘাতের শেষ কোথায়? 

লালা লাজপত রাই হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডঃ অনুরাগ রাজোরিয়া জানিয়েছেন, তরুণীর অবস্থা শঙ্কাজনক। শরীরের বেশিরভাগ অংশই পুড়ে গেছে।

প্রয়াগরাজ জোনের অতিরিক্ত ডিজি সুজিত পান্ডে জানিয়েছেন, গ্রামের পঞ্চায়েতের দাবি ওই তরুণীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল অভিযুক্তের। এই সম্পর্ক মেনে নিতে চায়নি তরুণীর পরিবার। সেই আক্রোশেই এই ঘটনা ঘটাতে পারে অভিযুক্ত। নির্যাতিতার পরিবারের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্ত পলাতক। তাকে খুঁজে বার করার চেষ্টা চলছে।

অপরাধীদের বিরুদ্ধে আদালতে সাক্ষ্য দিতে যাওয়ার সময়ে উন্নাওয়ের ধর্ষিতাকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করেছিল দুষ্কৃতীরা। বেধড়ক মারধর করে, গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ৯০ শতাংশ দগ্ধ শরীর নিয়ে নির্যাতিতার বাঁচার লড়াই থেমে গেছে গত সপ্তাহেই। এরপরেই ক্ষোভের আগুন জ্বলেছে গোটা দেশে। নির্যাতিতার পরিবারকে ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। ঘটনায় উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, রাজ্যে এমন ঘটনা আর যাতে না ঘটে সে জন্য চেষ্টা করবে প্রশাসন। তার মধ্যেই ফের ফতেপুরের এমন নারকীয় ঘটনা সামনে আসায় ফের ক্ষোভের আগুন জ্বলেছে।

Share.

Comments are closed.