বুধবার, অক্টোবর ১৬

আজ হারালাম, উনিশেও হারাব, মোদীই আমায় শিখিয়েছেন কী কী করতে নেই: রাহুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছত্তীসগড় ও রাজস্থানে কংগ্রেসের নিশ্চিত জয়ের ছবিটা দিনের আলো থাকতেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। দিনভর নাটকীয় ওঠা পড়ার পর মধ্যপ্রদেশের ফলাফলও ততক্ষণে প্রায় থিতু হয়ে গিয়েছে। পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে গো বলয়ের তিন রাজ্যেই মোদী-অমিত শাহ-র দলকে ডাহা হারিয়েছে কংগ্রেস। এবং সেটা স্পষ্ট হতেই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দশ নম্বর জনপথে সনিয়া গান্ধীর বাসভবন থেকে ২৪ নম্বর আকবর রোডে হেঁটে ঢুকলেন রাহুল গান্ধী। তার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রবল আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে জানিয়ে দিলেন, আজ হারালাম, উনিশেও হারাব। দেখবেন নরেন্দ্র মোদীর জেতাও কঠিন হয়ে যাবে।

চোদ্দর নির্বাচনের কিছুটা আগে থেকে রাহুল গান্ধীর ইতস্তত হাবভাব, প্রশ্নের মুখে পড়ে থতমত খেয়ে যাওয়া মুখ এক সময়ে জাতীয় রাজনীতিতে অতি পরিচিত ছবি হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কিন্তু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাংবাদিক বৈঠকের মঞ্চে বসা রাহুল যেন ভিন্ন চরিত্র। তাঁর উপস্থিতিই বুঝিয়ে দিচ্ছিল হিন্দিবলয়ের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যে বিজেপি-কে পরাস্ত করার পর আত্মবিশ্বাস যেন চুঁইয়ে পড়ছে। ভাবটা এমনই যে বিধানসভা নির্বাচনে সবে ট্রেলর হয়েছে। উনিশের ভোটে এসপার ওসপার করে ছাড়বেন তিনি।

আরও পড়ুন উনিশের আগে মোদী ঝড়ের গতি নিশ্চয় কমলো, কিন্তু ভরাডুবি কি বলা যায়?

কী বললেন রাহুল?

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ দিন প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন রাহুল। হয়তো তিনিও জানেন, তিন রাজ্যের এই জয়ের নেপথ্যে মোদীর দায় যতটা তার থেকে অনেক বেশি প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার কারণে হার হয়েছে বিজেপি-র। কিন্তু কৌশলে এই হারকে মোদীর পরাজয় বলেই ব্যাখ্যা করতে চান রাহুল। বলেন, নরেন্দ্র মোদীকে দেখে আমার দুঃখ হয়। উনি বড় সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু কিছুই করে দেখাতে পারলেন না। আর এখন প্রধানমন্ত্রী তো পঙ্গু! আর কিছু করার ক্ষমতা নেই ওঁর। এর পরেই রাফাল কেলেঙ্কারি ও নোটবন্দি-র সিদ্ধান্ত নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা করেন রাহুল।

শুধু আত্মবিশ্বাসী নয়, এই রাহুল তাঁর কথায় বার্তায় এবং কৌশলে এখন যে আরও পোড় খাওয়া এ দিন স্পষ্ট হয়ে যায় সেই ছবিও। ২০১২ সালে গুজরাত বিধানসভা ভোটে নরেন্দ্র মোদীর জয় বা তার পর যে কোনও ভোটে বিজেপি-র সাফল্যের পর মোদী-অমিত শাহ-র উত্তরোত্তর আগ্রাসী মুখটাই দেখেছে মানুষ। কিন্তু রাহুল যেন সুচিন্তিত ভাবে মোদীর সঙ্গে নিজের ভাবমূর্তিতে একটা ফারাক নির্মাণে ব্যস্ত। ভোটে সাফল্যের পর তিনি যেন আরও উদার, আরও ধীর এবং পরিণত। এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে নিজে থেকেই রাহুল বলেন, গতকালই মা-র সঙ্গে কথা হচ্ছিল। মা-কে বলছিলাম আসলে চোদ্দর ভোট থেকেই আমি অনেক কিছু শিখেছি। অনেকে ভাবতে পারেন এ কি বলেছি। কিন্তু খোলাখুলিই বলি এটাই বাস্তব। নরেন্দ্র মোদীই আমায় শিখিয়েছেন কী কী করতে নেই!

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Comments are closed.