বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫

দুম করে কোনও সিদ্ধান্ত নয়, প্রিয়াঙ্কাকে রাজনীতিতে আনাটা বহু বছরের প্ল্যান: রাহুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত বুধবার সকালে জাতীয় রাজনীতিতে কিছুটা চমকে দিয়ে রাহুল গান্ধী ঘোষণা করেছিলেন, বোন প্রিয়াঙ্কা বঢড়া যোগ দিচ্ছেন রাজনীতিতে। তাঁকে কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পদের দায়িত্ব দিয়ে পূর্ব উত্তরপ্রদেশের পর্যবেক্ষক করা হয়েছে।

রাহুলের ওই ঘোষণার পর, কেউ কেউ বলতে শুরু করেছিলেন, দুম করেই নাকি সিদ্ধান্তটা নিয়েছেন ভাই-বোন। সম্প্রতি দুবাই থেকে রাহুল সোজা চলে গিয়েছিলেন নিউইয়র্কে। সেখানে আগে থেকেই ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। তার পর ভাই-বোন মিলে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেন, ২৩ জানুয়ারি সক্রিয় রাজনীতিতে আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগ দেবেন প্রিয়াঙ্কা।

কিন্তু শুক্রবার ওড়িশায় দলীয় কর্মীদের নিয়ে এক সভায় রাহুল জানিয়ে দেন এ সব হল স্রেফ আষাঢ়ে গল্প। তাঁর কথায়, “দশ দিন আগে এই সিদ্ধান্ত হয়নি। প্রিয়াঙ্কার রাজনীতিতে নামার ব্যাপারে কয়েক বছর আগেই সিদ্ধান্ত হয়েছিল। তার পর প্ল্যান মাফিকই সব কিছু এগিয়েছে।” রাহুল জানান, আগে প্রিয়াঙ্কা রাজনীতিতে আসার বিষয়ে খুব আগ্রহী ছিলেন না। ওঁর অগ্রাধিকার ছিল ছেলেমেয়েকে বড় করা। পরে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত বদলেছে বোন।

বস্তুত প্রিয়াঙ্কা রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে জাতীয় রাজনীতিতে হইচই পড়ে গিয়েছে। প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার মুখের মিল রয়েছে। অনেকে বলেন, ইন্দিরার ছায়া। ঠাকুমা-নাতনির ছবি নতুন করে ছেয়ে ফেলেছে সোশ্যাল মিডিয়া। বিজেপি তো বটেই, অনেকেই আবার পরিবারতন্ত্রের রাজনীতি নিয়ে খোঁচাও দিচ্ছেন।

এই পরিস্থিতিতে রাহুল এ দিন বলেন, “প্রিয়াঙ্কা আর আমার উপর দিয়ে কী ঝড় বয়েছে তা আমরাই জানি। বাইরে থেকে মনে হয় কত সহজে এঁরা কত কিছু পেয়ে যাচ্ছে! অথচ আমরা ঠাকুমাকে হারিয়েছি, বাবাকে হারিয়েছি। তাঁদের নৃশংস ভাবে খুন করা হয়েছিল। রাজনীতির বলি হয়েছেন তাঁরা। ওই দুই ঘটনা আমাদের আরও কাছে এনে দিয়েছে।” কংগ্রেস সভাপতি এ দিন বোঝাতে চান, পরিবারে পর পর দুই হত্যার ঘটনার পর রাজনীতিতে নামাটা সহজ ছিল না। এমন পরিস্থিতিতে পড়ে অনেকেই হয়তো পিছিয়ে আসতেন।

তবে প্রিয়াঙ্কা যখন রাজনীতিতে নেমেই পড়েছেন তখন খেলা এ বার স্ট্রেট ব্যাটে হবে বলেই জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি। কদিন আগে উত্তরপ্রদেশ সফরে গিয়ে রাহুল বলেছিলেন, প্রিয়াঙ্কাকে দায়িত্ব দেওয়ার পর কংগ্রেস এ বার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পদের জন্য লড়াইয়ে নামবে। দলকে শক্তিশালী করাকেই তাঁরা এখন চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছেন। ওড়িশাতেও দলের লক্ষ্য হবে সেটাই।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Shares

Comments are closed.