বুধবার, মার্চ ২০

এখন কোনও বিতর্ক নয়, পাশে আছি সরকারের, স্পষ্ট বললেন রাহুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বৃহস্পতিবার দুপুরে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পর লখনউয়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাতিল করে দিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। শুক্রবার সকালে কংগ্রেস সদর দফতরে সাংবাদিক সম্মেলন করে শোক জ্ঞাপনের পাশাপাশি দলের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী জানিয়ে দিলেন, “এখন রাজনৈতিক বিতর্কের সময় নয়। জওয়ানদের পাশে আছি। পাশে আছি সরকারেরও। এখন আর অন্য কোনও আলোচনা নয়।”

রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংও। রাহুল আরও বলেন, “এই হামলা ভারতবর্ষের আত্মার উপর হামলা।”

বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের অনেক নেতাই হামলা ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করেছিলেন। কিন্তু রাহুল বুঝিয়ে দিলেন, সে পথে এখন কোনওভাবেই হাঁটতে চায় না দল। পর্যবেক্ষকদের মতে, কাশ্মীরের ঘটনার পর জাতীয়তাবাদী যে হাওয়া বইছে তাতে অন্য কথা বলা মানেই মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া। সেটা কোনওভাবেই চাইছে না কংগ্রেস।

প্রসঙ্গত, ৭১-এর মুক্তি যুদ্ধের পর সংসদে দাঁড়িয়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে  মা দুর্গা বলেছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। সে দিনও বাজপেয়ীর মতো পোড় খাওয়া নেতা ঘোলা জলে রাজনীতি করতে চাননি। একই পথে হাঁটলেন রাহুল।

যুদ্ধ কতটা ভয়াবহ, বা তা হওয়া উচিত কি নয়, তা নিয়ে তাত্ত্বিক বিতর্ক থাকলেও, সাধারণ মানুষের সার্বিক ট্রেন্ড এটাই, তারা চায় হামলার মদতদাতাদের উচিত শিক্ষা দিক সরকার। বৃহস্পতিবার থেকে মোদী, অরুণ জেটলি, রাজনাথ সিংরা সেই কথা বলতে শুরু করে দিয়েছেন। শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটির জরুরি বৈঠকের পরে সে কথা আরও একবার বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। ভোটের কয়েক মাস আগে জাতীয়বাদী আবেগ যে ভাবে চাগাড় দিয়েছে, সেটাকে কাজে লাগানোয় কোনও ভাবেই ফাঁক রাখতে চাইছে না কংগ্রেস।

আরও পড়ুন 

এক্সক্লুসিভ: ছেলে চলে গেল, আর কারও কাছে কিচ্ছু চাওয়ার নেই…

Shares

Comments are closed.