রবিবার, ডিসেম্বর ৮
TheWall
TheWall

রাফাল চুক্তির সিবিআই তদন্তের দরকার নেই, রিভিউ পিটিশন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাফাল চুক্তি নিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এ ব্যাপারে কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে ক্লিনচিট তথা ছাড়পত্র দিয়ে দিল সর্বোচ্চ আদালত।

রাফাল চুক্তিতে যে কোনও অনিয়ম হয়নি তা নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট গত বছরই রায় দিয়েছিল। কিন্তু সেই রায় পুনর্বিবেচনা করে দেখার জন্য লোকসভা ভোটের আগে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন, বিজেপি-রই দুই বিক্ষুব্ধ নেতা যশবন্ত সিনহা ও অরুণ শৌরি। সেই সঙ্গে আবেদন করেছিলেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। তাঁদের বক্তব্য ছিল, ৩৬ টি রাফাল জেট কেনার ক্ষেত্রে যে কোনও অনিয়ম হয়নি বা তা সন্দেহের উর্ধ্বে সে ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া প্রয়োজন। সে জন্যই সুপ্রিম কোর্টের উচিত তা ফের খতিয়ে দেখা। ওই মামলার শুনানির পর গত ১০ মে রায়দান স্থগিত রেখেছিল সুপ্রিম কোর্ট।

১৭ নভেম্বর প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ অবসর নেবেন। তার আগে গুরুত্বপূর্ণ এই মামলার রায় ঘোষণা হয়। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি এ কে কল এবং কেএম জোশেফ যশবন্ত-শৌরিদের আবেদন খারিজ করে দেন।
ওই মামলার শুনানির সময় কেন্দ্রের তরফে এই সওয়াল করা হয়েছিল যে আবেদনকারীরা সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে এই মামলা করেছেন। এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে তাঁরা এটা করছেন।

এটা ঠিক যে আবেদনকারীরা সংবাদপত্রে প্রকাশিত একটি ফাইল নোটিং আদালতে পেশ করেছিল। যে নোটিংয়ে লেখা ছিল যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্তারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয় রাফাল নির্মাণকারী সংস্থা দাসো-র সঙ্গে দরকষাকষিতে নাক গলাচ্ছে। তবে সুপ্রিম কোর্ট তাঁদের যুক্তি মানতে চায়নি। তা ছাড়া কেন্দ্রেরও বক্তব্য ছিল যে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের অফিসাররা কোনও বিষয়ে তথ্য জানতে চাওয়া মানেই যে সেখানে অনিয়ম হয়েছে তা কে বলল!

রাফাল চুক্তিতে দুর্নীতি হয়েছে অভিযোগ করে দেশ জুড়ে প্রচার করেছিলেন রাহুল গান্ধী। সেই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, ওই চুক্তি মারফৎ শিল্পপতি অনিল আম্বানিতে ৩০ হাজার কোটি টাকা পাইয়ে দিয়েছিল মোদী সরকার। কিন্তু গত বছর ডিসেম্বর মাসে সুপ্রিম কোর্ট তাদের রায়ে পরিষ্কার জানিয়ে দেয় যে, তারা কোনও অনিয়ম খুঁজে পায়নি। সরকার যে প্রতিরক্ষা চুক্তি করেছে তা সন্দেহের উর্ধ্বে।

সুপ্রিম কোর্টের এদিনের রায় মোদী সরকার তথা বিজেপি-কে যে অক্সিজেন দিয়েছে তা নিয়ে সংশয় নেই। তা ছাড়া কংগ্রেসের রাফাল অস্ত্র এর ফলে চিরতরে ভোঁতা হয়ে গেল বলেও শাসক শিবিরের দাবি। কংগ্রেস অবশ্য এ বিষয়ে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

Comments are closed.