সোমবার, এপ্রিল ২২

#Breaking: ভোট শেষ না হলে দেখানো যাবে না নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক

দ্য ওয়াল ব্যুরো : একইদিনে জোড়া ধাক্কা বিজেপির। বুধবার সকালেই সুপ্রিম কোর্ট রাফায়েল নিয়ে আগের রায় পুনর্বিবেচনা করতে রাজি হয়। দুপুরে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জীবনীর ভিত্তিতে নির্মিত ছবির রিলিজ আটকে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তারা বলেছে, কারও জীবনী অবলম্বনে ছবি দেখানো হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি এবং রাজনৈতিক সংগঠন লাভবান হতে পারে। ভোটে কোনও এক পক্ষ বাড়তি সুবিধা পেতে পারে। আদর্শ আচরণবিধি অনুযায়ী ওই ধরনের ছবি এখন দেখানো ঠিক নয়।

মোদীর বায়োপিক নিয়ে যে অভিযোগ জমা পড়েছে, তা খতিয়ে দেখবে একটি প্যানেল। তার নেতৃত্বে থাকবেন সুপ্রিম কোর্ট অথবা হাইকোর্টের কোনও অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি।

ছবির নাম ‘পিএম নরেন্দ্র মোদী’। পরিচালক উমঙ্গ কুমার। মোদীর ভুমিকায় অভিনয় করেছেন বলিউডের অভিনেতা বিবেক ওয়েরয়। দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করে মোদী কীভাবে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী হলেন এবং ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে জয়লাভ করলেন, তা নিয়েই নির্মিত হয়েছে ওই ছবি। ১১ এপ্রিল ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কংগ্রেসের অভিযোগ, ভোটের সময় যদি ওই ছবি মুক্তি পায়, তাহলে ভোটাররা প্রভাবিত হতে পারেন।

ছবির মুক্তি আটকে দেওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিল কংগ্রেস। কিন্তু বিচারপতিরা সেই আর্জি খারিজ করে বলেন, নির্বাচন কমিশনই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। তাছাড়া ছবিটি এখনও সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায়নি। তার আগেই ছবির মুক্তি নিয়ে আদালত মাথা ঘামাতে পারে না।

মঙ্গলবার ৬৫ জন অবসরপ্রাপ্ত আমলা রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান। সেখানে মোদীর বায়পিকের কথা উল্লেখ করে তাঁরা বলেছেন, বার বার বলা সত্ত্বেও ওই ছবির রিলিজ বন্ধ করা হয়নি। মোদীর জীবনী অবলম্বনে একটি ওয়েব সিরিজ ইতিমধ্যে দেখানো হচ্ছে।

উমঙ্গ কুমার এর আগে বলেছিলেন, মোদীর জীবনী অবলম্বনে ছবি বানানো বিরাট দায়িত্বের কাজ ছিল। তিনি ওই কাজে নেতৃত্ব দিতে পেরে গর্বিত। মোদীর মতো গুণী নেতা এদেশে খুব কমই দেখা গিয়েছে। এর আগে বক্সার মেরি কম ও পাকিস্তানের জেলে বন্দি সরবজিৎকে নিয়ে ছবি বানিয়েছিলেন উমঙ্গ কুমার।

মোদীর বায়োপিকের ক্রেডিট কার্ডে গীতিকার জাভেদ আখতারের নাম উল্লেখ করা নিয়ে বিতর্ক হয়। জাভেদ আখতারের লেখা একটি পুরানো গানকে এই ছবিতে নতুন করে ব্যবহৃত হয়েছিল। জাভেদ আখতার তাতে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেছিলেন, ছবির গীতিকার হিসাবে পোস্টারে আমার নাম দেওয়া হয়েছে। আমি কখনও ওই ছবির জন্য গান লিখিনি। আমার নাম কেন পোস্টারে দেওয়া হয়েছে জানি না।

Shares

Comments are closed.