বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯

ট্রাফিক আইন ভাঙার জরিমানা ৮৬,৫০০ টাকা! ফের শিরোনামে ওড়িশা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ট্রাফিক আইন ভাঙলেই হবে বিপুল জরিমানা। নয়া ট্রাফিক রুলের ঠ্যালায় ত্রাহি ত্রাহি রব উঠেছে দেশে। এ বার এক ট্রাক ড্রাইভারের ফাইন হয়েছে ৮৬ হাজার ৫০০ টাকা। অভিযোগ, একাধিক ট্রাফিক নিয়ম ভেঙেছেন ওই ট্রাক চালক। পরিসংখ্যান বলছে, এ যাবৎ দেশে যত জরিমানা হয়েছে তার মধ্যে ওড়িশার সম্বলপুরের এই ট্রাক চালকের জরিমানার পরিমাণ সবচেয়ে বেশি।

গত ৩ সেপ্টেম্বর এই বিপুল পরিমাণ ফাইন হয় ট্রাক চালক অশোক যাদবের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় তাঁর ফাইনের চালানের ছবি। যেখানে জ্বলজ্বল করছিল ৮৬,৫০০ টাকা। তা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হওয়ার জোগাড়। সম্বলপুরের রিজিওনাল ট্রান্সপোর্ট অফিসার ললিত মোহন বেহেরা জানিয়েছেন, একাধিক নিয়ম ভেঙেছেন ওই ট্রাক চালক অশোক যাদব।

কী কী নিয়ম ভেঙেছিলেন অশোক? কতই বা তার জরিমানা?

  • লাইসেন্স নেই এমন লোককে ট্রাক চালাতে দেওয়া- ৫০০০ টাকা
  • নিজেও লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো- ৫০০০ টাকা
  • ১৮ টনের বেশি জিনিস দিয়ে ট্রাক ওভারলোড করা- ৫৬০০০ টাকা
  • ট্রাকের মালপত্রের উচ্চতা বেশি হওয়া- ২০০০০ টাকা
  • এ ছাড়াও ৫০০ টাকা জরিমানা হয়েছে অশোকের।

যদিও জানা গিয়েছে, ৫ ঘণ্টা ধরে আলাপ-আলোচনার পর ৭০,০০০ টাকা জরিমানা দিয়েছেন ওই ট্রাক চালক। জানা গিয়েছে, নাগাল্যান্ডের একটি কোম্পানির ট্রাক এটি। এর মধ্যে লোড করা হয়েছিল জেসিবি মেশিন।

কদিন আগে ওড়িশাতেই ট্রাফিক আইন ভাঙার জন্য ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা দিতে হয়েছিল এক অটো চালককে। রেননি অটো চালক। সে জন্য তাঁর থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা নেওয়া হয়। চাওয়া হয় ড্রাইভিং লাইসেন্স। সেটাও ছিল না। তার জন্য তাঁকে গুনতে হয় আরও ৫ হাজার। এরপর মুখে যন্ত্র লাগিয়ে দেখা যায়, ও মা তিনি গলা পর্যন্ত মদ খেয়ে রয়েছেন! মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর জন্য আরও ১০ হাজার। পলিউশন এবং গাড়ির ফিট সার্টিফিকেট না থাকায় যথাক্রমে ১০ ও ৫ হাজার টাকা করে নেওয়া হয় তাঁর থেকে। সব মিলিয়ে হিসেবটা ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা।

Comments are closed.