হৃতিকের ছবির শ্যুটিংয়ে ধরা পড়ল দুই ‘জঙ্গি’, জেরা করতে গিয়ে পুলিশ দেখল ‘একস্ট্রা’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘জঙ্গি’ ধরল মুম্বই পুলিশ?

    না, বিন্দুমাত্র ভুল নেই। ঠিক তেমনই দাড়ি, পরনে আদ্যোপান্ত জঙ্গি-পোশাক, বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, পিঠের ব্যাগ-প্যাকে কি তার মানে বোমা? চলনে-বলনে, আদব-কায়দায় যাকে বলে পাক্কা ফিদায়েঁ। এমন দুই ‘জঙ্গি’কে মুঠোর মধ্যে পেয়ে তড়িঘড়ি পাকড়াও করেছিল মুম্বই পুলিশ। গোটা শহর ফুঁড়ে হাতে নাতে জঙ্গি ধরে উল্লাস করতে যাবে, আচমকাই ছন্দপতন। কাঁচুমাচু মুখের দুই যুবকের তখন কেঁদে ফেলার দশা। তাজ্জব ব্যাপার! জঙ্গিদের মধ্যে তো এমন লক্ষণ দেখা যায় না, তাহলে এরা কারা?

    ঘটনার শুরু বুধবার সকালেই। গত কয়েকদিন ধরে দেশের মেট্রো শহরগুলিতে জোরদার তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশের স্পেশাল ফোর্স। কারণ ভোট শুরুর আগে থেকেই জঙ্গিরা যে বড়সড় নাশকতার ছক কষছে এমন আভাস দিয়েছিল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। ভোট মিটতেই সে সম্ভাবনা আরও প্রবল হয়েছে। দেশের মেট্রো শহরগুলিতে হামলার হুমকিও দিয়েছে ইসলামিক স্টেট। সব মিলিয়েই তাই যথেষ্ট উদ্বেগে প্রশাসন। মু্ম্বই শহরে জঙ্গিদের স্লিপার সেল লুকিয়ে থাকতে পারে এই আশঙ্কায় শহরের আনাচ কানাচে তল্লাশি অভিযানও চালাচ্ছে পুলিশ। সেই অভিযান চালাতে গিয়েই ভাসাই এলাকা থেকে ধরা পড়ে ওই দুই ‘জঙ্গি।’

    বলরাম গিনওয়ালা (২৩) এবং আরবাজ খান (২০) এই দুই ‘জঙ্গি’কে নিয়েই দিনভর নাটক চলে ভাসাইয়ের থানায়। কাঁদতে কাঁদতে দুই যুবকই জানায় যে তারা আদৌ জঙ্গি নয়, বরং বলিউড ছবির দুই অভিনেতা। বলা বাহুল্য, ‘একস্ট্রা’ । যশ রাজ ব্যানারে হৃতিক রোশন ও টাইগার শ্রফ অভিনীত নতুন ছবির একটি দৃশ্যে অভিনয়ের জন্যই এমনতর সেজেছিল তারা। শ্যুটিংয়ের ফাঁকে ইউনিট থেকে বেরিয়েছিল রাস্তায় একটু হাওয়া খাবে বলে।

    যুবকদের এই কাকুতি-মিনতি প্রথমে কানে তুলতে চায়নি পুলিশ। উল্টে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারায় মামলাও দায়ের করা হয়েছিল। শেষে ছবির ইউনিট থেকে লোক পাঠিয়ে পুলিশকে যাবতীয় তথ্য-প্রমাণ দেওয়া হয়। যুবকদের ঠিকুজি-কুষ্ঠী হাতে পেয়েও সেগুলো দীর্ঘক্ষণ খতিয়ে দেখে পুলিশ। এক্কেবারে নিশ্চিত হয়েই ছাড় মেলে বলরাম ও আরবাজের।

    পুলিশের অবশ্য দাবি, এমন পোশাকের কারণে ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন এলাকার বাসিন্দারাই। তাঁরাই খবর দেয় পুলিশকে। প্রকাশ্য রাস্তায় বহাল তবিয়তে দুই জঙ্গি ঘুরে বেড়াচ্ছে, এমনটা দেখে আতঙ্কে যে যার ঘরে ঢুকে দোর দিয়েছিলেন। তাই আগুপিছু না ভেবেই পুলিশ পাকড়াও করে দু’জনকে।

    মুম্বই পুলিশ এখন যতই সাফাই গাক না কেন, ইতিমধ্যেই এই ঘটনার ডজনখানেক মিম ছেয়ে গেছে নেট দুনিয়ায়। হাসির রোল উঠেছে ভিউয়ারদের মধ্যে। কেউ বলছেন, মুম্বই পুলিশের মাথা খারাপ হয়ে গেছে, আবার কারওর দাবি, এমন কস্টিউম যখন, সিনেমা ভালো হতে বাধ্য। কেউ কেউ আবার, যুবকদের রজনীকান্তের সঙ্গে তুলনা করেছেন। বলেছেন, জেল থেকে তারা বার হবে ঠিক ‘থ্যালাইভা’র স্টাইলে।

    তবে যতই হাসি-মস্করা চলুক, মুম্বই পুলিশ কিন্তু চূড়ান্ত সতর্ক। থানা থেকে ছাড়ার আগে বলরাম আর আরবাজকে বেশ কড়া করেই পুলিশ শুনিয়ে দিয়েছে, “এমন কস্টিউম পড়ে খোলা রাস্তায় আর নয়, তাহলে কিন্তু আবার গ্রেফতার করে থানায় ভরে দেবে যে কেউ।”

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More