শুক্রবার, জুলাই ১৯

মহিলা সহকর্মীকে যৌনহেনস্থা, ভিডিয়ো তুলে ব্ল্যাকমেলের অভিযোগে গ্রেফতার এমএনসি এক্সিকিউটিভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : এক মহিলা সহকর্মীকে যৌনহেনস্থা ও তারপর অশ্লীল ভিডিয়ো ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেলের অভিযোগে গ্রেফতার করা হলো গুরগাঁওয়ের এক মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির এক্সিকিউটিভকে।

পুলিশ সূত্রে খবর, গুরগাঁওয়ের একটি কোম্পানিতে কাজ করেন দিল্লির বাসিন্দা ২৪ বছরের ওই তরুণী। সেখানেই গত এক বছর ধরে তাঁর সহকর্মী বছর ২৫-এর ওই অভিযুক্ত। জানা গিয়েছে, সেপ্টেম্বর মাসে ওই মহিলাকে প্রোপোজ করেন ওই তরুণ। কিন্তু ওই তরুণী না করে দিলে ওই তরুণ ভয় দেখান, যদি তিনি বন্ধুত্ব না করেন তা হলে হাতের শিরা কেটে ফেলবেন। এই ঘটনার পর বাধ্য হয়ে সহকর্মীর সঙ্গে বন্ধুত্ব করেন ওই তরুণী।

পুলিশের অ্যাসিট্যান্ট কমিশনার অমন যাদব জানিয়েছেন, “ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে ওই তরুণীকে সোহনা রোড এলাকায় নিজের বাড়িতে নিমন্ত্রণ করেন অভিযুক্ত। তরুণী গেলে সেখানে জোর করে তাঁর যৌননিগ্রহ করেন ওই তরুণ। এমনকী তিনি বলেন, ওই তরুণীকে বিয়ে করতে চান। তরুণী যেন তাঁর বাড়িতে কথা বলেন। এই সময়ই গোটা ঘটনার ভিডিয়ো করে রাখেন অভিযুক্ত। তরুণী তা জানতেন না।”

পুলিশ সূত্রে খবর, এরপরেই অফিসের রেজিস্টার থেকে তরুণীর বাবার ফোন নম্বর বের করে তাঁকে ফোন করেন অভিযুক্ত। এই ব্যাপারে তরুণী কথা বলতে গেলে ওই তরুণ ভয় দেখান, যদি এই বিয়েতে কেউ বাধা দেয় তাহলে তিনি ওই তরুণীর অশ্লীল ভিডিয়ো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবেন। এমনকী গত শুক্রবার অফিসে তরুণীকে সেই ভিডিয়োও দেখান তিনি। ভয় পেয়ে গিয়ে তাঁকে হোয়াটসঅ্যাপে ব্লক করে দেন তরুণী।

জানা গিয়েছে, এই ঘটনার পর তাঁর বাড়ি এসে অন্য একটা নম্বর থেকে ফোন করে তাঁকে আনব্লক করার জন্য চাপ দেন ওই তরুণ। তরুণী রাজি না হলে অভিযুক্ত তাঁর বাবাকে ফোন করে বলেন, তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে। তরুণীর বাবাকে এই বলেও ভয় দেখান যে বিয়ে না দিলে তাঁর মেয়ের চরিত্র ও সম্মান তিনি নষ্ট করে দেবেন। তারপরেই বাধ্য হয়ে পুলিশে খবর দেন ওই তরুণী।

অভিযোগ পেয়েই ওই তরুণকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁর ফোন ঘেঁটে ভিডিয়ো পাওয়া যায়। তাঁর বিরুদ্ধে আইপিসি ৩৭৬ ( ধর্ষণ ) ও ৫০৬ ( অপরাধমূলক কাজে ) ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আপাতত পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে তাঁকে।

Comments are closed.