শনিবার, মার্চ ২৩

এক অন্য প্রেমের গল্প, ভ্যালেন্টাইনস ডে’র দিনেই রূপান্তরকামী জয়াকে বিয়ে করলেন জুনেইদ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দু’বছরের ভালোবাসার সম্পর্কের পর দু’জন ঠিক করেছিলেন বিয়ে করবেন। ভ্যালেন্টাইনস ডে’র দিনেই চার হাত এক হয়ে গেল। কিন্তু পাত্রের পরিবারের সম্মতি ছিল না এই বিয়েতে। কারণ, একজন ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরকামীকে যে বিয়ে করেছে তাঁদের বাড়ির ছেলে।

মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের বাসিন্দা জুনেইদ খানের সঙ্গে ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল জয়া সিং পরমারের। এই জয়া আসলে একজন রূপান্তরকামী। আর তাই জুনেইদের বাড়ির লোকেদের প্রথম থেকেই এই সম্পর্কে সায় ছিল না। কিন্তু তাতে তাঁদের ভালোবাসা আটকায়নি। ১৫ দিন আগে জুনেইদ বিয়ের জন্য প্রোপোজ করেন জয়াকে। সঙ্গে সঙ্গেই জয়া রাজি হয়ে যান।

তাঁরা ঠিক করেন ১৪ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ ভ্যালেন্টাইনস ডে’র দিনেই বিয়ে করবেন দু’জন। যথারীতি জুনেইদের বাড়ির সায় ছিল না বিয়েতে। অন্যদিকে জয়ার পরিবারের লোক রাজি ছিলেন। বাড়ির মত না থাকলেও বিয়ে করেন জুনেইদ। ১৪ ফেব্রুয়ারি এলাকারই একটি মন্দিরে গিয়ে হিন্দু মতে বিয়ে করেন দু’জন। শিগগির মুসলিম মতেও তাঁদের নিকাহ হবে বলে জানিয়েছেন জুনেইদ-জয়া।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে জুনেইদ বলেন, ‘‘আমি শুধু চাই পরিবার আমাদের বিয়ে মেনে নিক। তবে ওরা মেনে না নিলেও আমি জয়ার সঙ্গেই থাকব। আমি ওকে খুব ভালোবাসি এবং সব সময় ওকে আনন্দে রাখবো।” অন্য দিকে বিয়ের পর জয়া বলেন, ‘‘বিয়ে আমার কাছে একটা বড় বিষয়। ভারতের সমাজ ব্যবস্থায় যে কোন রূপান্তরকামীর কাছে বিয়ে একটা খুব বড় বিষয়।” জয়া আরও বলেন, ‘‘জুনেইদের বাবা-মা আমাদের এই বিয়ের বিপক্ষে ছিলেন। তা সত্বেও জুনেইদ আমাকে বিয়ে করলো। আমি এটুকুই আশা করি যে ওঁরা তাড়াতাড়ি আমাকে মেনে নেবেন নিজেদের পুত্রবধূ হিসেবে।”

আরও পড়ুন

‘দরকার পড়লে ছোট ছেলেকেও যুদ্ধে পাঠাবো’, চোখে জল, বুকে গর্ব নিহত জওয়ানের বাবার

Shares

Comments are closed.