শনিবার, ডিসেম্বর ১৪
TheWall
TheWall

মোদী ডাকলেন সর্বদল বৈঠক। মমতা বললেন, আমার সন্দেহ কোনও গেমপ্ল্যান রয়েছে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুলওয়ামার নৃশংস হত্যালীলার পর শনিবার এ ব্যাপারে সর্বদল বৈঠক ডেকেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। যে বৈঠক ডেকে সম্ভবত পাক মদতপুষ্ট সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কোনও সর্বসম্মত প্রস্তাব গ্রহণ করার চেষ্টা করা হবে। কিন্তু তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সন্দেহ, এই বৈঠক ডাকার নেপথ্যেও নিশ্চয়ই কোনও গেম প্ল্যান রয়েছে মোদী সরকারের।

শুক্রবার নবান্ন থেকে বেরনোর সময় এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মমতা বলেন, “আমি বুঝতে পারছি না কেন ওরা এখন সংসদীয় দলের নেতাদের বৈঠকে ডেকেছেন! কারণ, লোকসভা শেষ হয়ে গেছে। স্পিকারের উদ্দেশে ধন্যবাদ প্রস্তাবও হয়ে গিয়েছে। এর পর রাজনৈতিক দলের নেতাদের না ডেকে লোকসভায় সংসদীয় দলের নেতাদের বৈঠকে ডাকার অর্থ কী? আমার সন্দেহ নিশ্চয়ই ওদের কোনও গেম প্ল্যান রয়েছে।”

প্রসঙ্গত, লোকসভায় তৃণমূল সংসদীয় দলের নেতা হলেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার বক্তব্য অনুযায়ী সুদীপবাবুকে সর্বদল বৈঠকে ডাকা হয়েছে। তৃণমূলের সর্বোচ্চ নেতাকে ডাকা হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই আমন্ত্রণ জানানো হতো। কিন্তু তা হয়নি।

প্রসঙ্গত, এর আগে উরির সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হামলার পর ভারতীয় সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে গিয়ে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছিল। সে ব্যাপারে সব দলের নেতাদের সবিস্তারে জানানোর জন্য সরকার সর্বদল বৈঠক ডেকেছিল। কিন্তু সন্ত্রাসবাদী হামলার পর সর্বদল বৈঠক ডাকার ঘটনা এই প্রথম।

তবে তৃণমূলনেত্রী যে ভাবে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন, সে ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে বিজেপি-র এক শীর্ষ নেতা বলেন, “এই বিষয়ে প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য করব না। কারণ, তাতে সর্বদল বৈঠকের উদ্দেশ্যটাই ঘেঁটে যাবে। ওনার সবেতেই সন্দেহ করা অভ্যাস। এও হতে পারে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে সর্বদল বৈঠকের ব্যাপারটি আগেই ঘেঁটে দিতে চাইছেন তিনি। এই রাজনীতি কোনওভাবেই দেশের স্বার্থে নয়।”

আরও পড়ুন

#Breaking: বিশদে তদন্ত না করেই দোষারোপ করা ঠিক হচ্ছে না, পুলওয়ামা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য মমতার

Comments are closed.