মঙ্গলবার, মার্চ ১৯

প্রার্থীর নামে ক্রিমিনাল কেস? বিজ্ঞাপন দিতে হবে টিভি ও খবরের কাগজে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রবিবার সাংবাদিক বৈঠক করে লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করে দিয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় লোকসভা ভোট করতে একাধিক পদক্ষেপের কথা বলেছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশন সুনীল অরোরা। তার মধ্যেই কমিশন জানিয়েছে, লোকসভা ভোটে যাঁরা প্রার্থী হবেন, তাঁদের নামে যদি ফৌজদারি মামলা থাকে বা অতীতে কোনও মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে থাকেন, তাহলে তা খবরের কাগজ এবং টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে জানাতে হবে। এক দিন দিলেই হবে না। কমিশন নির্দিষ্ট করে বলে দিয়েছে, প্রচার পর্বে তিন দিন ওই বিজ্ঞাপন দিতে হবে।

অনেকেই ভাবতে পারেন, প্রার্থীরা কৌশল করে কোনও ছোট খবরের কাগজ বা লোকাল টেলিভিশন চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দিয়ে দায় সেরে ফেলবেন। কিন্তু সে গুড়ে বালি। কমিশন এ ব্যাপারেও স্পষ্ট করে নির্দেশ দিয়েছে। কমিশন তার নির্দেশিকায় বলেছে, ‘ওয়াইডলি সার্কুলেটেড’ অর্থাৎ যে খবরের কাগজ অনেক মানুষ পড়েন বা যে টেলিভিশন চ্যানেল অনেক মানুষ দেখেন তেমন জায়গাতেই এই বিজ্ঞাপন দিতে হবে আলাদা তিনদিন।

এমনিতে প্রার্থী হতে গেলে নির্বাচন কমিশনের কাছে হলফনামা দিয়ে প্রার্থীর সম্পত্তির হিসেব-সহ মামলা-মোকদ্দমা নিয়ে সব তথ্য জানাতে হয়। কিন্তু এ বার কমিশন তাতেই সীমাবদ্ধ রাখতে চাইছে না। ক্রিমিনাল কেস রয়েছে এমন কেউ যদি লোকসভা ভোটে দাঁড়ান তাহলে অবশ্যই তাঁকে বিজ্ঞাপন দিতে হবে। এবং এই খরচ যুক্ত হবে প্রার্থীর নির্বাচনের খরচের মধ্যেই।

পর্যবেক্ষকদের মতে, হিন্দিবলয়ের ক্ষেত্রে এই ঘটনা সবচেয়ে বেশি। বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তীসগড়ে যাঁরা প্রার্থী হন তাঁদের নামে ফৌজদারি মামলা নেই এমন খুঁজে পাওয়াই মুশকিল। সে যে দলই হোক না কেন। বাংলার ক্ষেত্রে এই ঘটনা  তুলনামূলক ভাবে কম। যদিও বিরোধী দলগুলির বক্তব্য, শাসক দলের দৌলতে এখন প্রায় সব বিরোধী নেতার নামেই মিথ্যে মামলা রয়েছে। যার জেরে কেউ ফেরার, কেউ আবার জামিনে মুক্ত। তাঁদের ক্ষেত্রেও বিজ্ঞাপন দিয়ে জানাতে হবে এ কথা। ফলে এ বার বাংলার খবরের কাগজ এবং টেলিভিশন চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে প্রার্থীদের ক্রিমিনাল রেকর্ড নিয়ে।

কমিশনের এই সিদ্ধান্তের ফলে, মানুষের মধ্যেও কৌতূহল তৈরি হবে কারা প্রার্থী হচ্ছেন বা তাঁদের নামে কোনও ক্রিমিনাল কেস রয়েছে কি না। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, রাজনীতিতে অপরাধের প্রবণতা ঠেকাতে নির্বাচন কমিশনের এই পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ।

Shares

Comments are closed.