বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯

বন্যাবিধ্বস্ত কেরলে ত্রাণকার্যে ব্যবহার হয়েছিল বায়ুসেনার বিমান-হেলিকপ্টার, রাজ্যকে ১০২ কোটি টাকার বিল পাঠাল কেন্দ্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত বছর বন্যাবিধ্বস্ত কেরলে ত্রাণের কাজে ব্যবহার করা হয়েছিল বায়ুসেনার বিমান ও হেলিকপ্টার। আর সেই দরুন সোমবার কেরল সরকারকে ১০২ কোটি টাকার বিল পাঠালো প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

সোমবার রাজ্যসভায় এ কথা জানানো হয়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী সুভাষ ভামরে সোমবার একটি লিখিত বিবৃতি দিয়ে এ কথা জানান। বিবৃতিতে বলে হয়েছে, কেরলে বিধ্বংসী বন্যার সময় কেরল সরকারের তরফে বায়ুসেনার বিমান ও হেলিকপ্টার চেয়ে পাঠানো হয়। ত্রাণকার্যের সময় বায়ুসেনার বিমান মোট ৫১৭ বার যাতায়াত করেছে। ৩ হাজার ৭৮৭ জনকে সুরক্ষিত জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে। ১ হাজার ৩৫০ টন কার্গো নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই সময়ে বায়ুসেনার হেলিকপ্টারও ৬৩৪ বার যাতায়াত করেছে। ৫৮৪ জনকে উদ্ধার করা ছাড়াও ২৪৭ টন মাল নিয়ে যাওয়া হয়েছে হেলিকপ্টারে।

সুভাষ ভামরে এ দিন বলেন, “এই কাজের জন্য প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে কেরল সরকারের কাছে ১০২.৬ কোটি টাকার বিল পাঠানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে প্রত্যেকটা বিল ভালোভাবে দেখে নেওয়ার পরেই তা পাঠানো হয়েছে।”

এ ছাড়াও এই বন্যার সময় বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনীর তরফে যে সাহায্য করা হয়েছে তার বিলও তৈরি হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে। সেই বিল তৈরি হয়ে যাওয়ার পরেই তা কেরল সরকারের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সুভাষ ভামরে।

গত বছর অগস্ট মাসে কেরলে বিধ্বংসী বন্যা হয়। এই বন্যায় রাজ্যের অর্থনৈতিক কাঠামো অনেকটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রচুর বাড়ি-ঘর ভেঙে পড়ে। চাষের ক্ষতি হয়। প্রচুর মানুষও মারা যান। রাজ্য সরকার সাহায্যের জন্য সেনাবাহিনী, বায়ুসেনা ও নৌসেনার সাহায্য নেয়। সেই সাহায্যের জন্যই এ দিন বিল পাঠালো কেন্দ্র।

আরও পড়ুন

ককপিটে ঢুকে চমকে উঠলেন পাইলট, একি! কে বসে আছে সিটে?

Comments are closed.