মঙ্গলবার, মার্চ ১৯

জয়সলমীরে নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে গ্রেফতার পাকিস্তানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত আইএসআই চর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এক আইএসআই চরকে গ্রেফতার করলেন নিরাপত্তারক্ষীরা। রাজস্থানের জয়সলমীরে সীমান্ত লাগোয়া এক গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে। আপাতত তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

সূত্রের খবর, গুপ্তচর মারফত নিরাপত্তারক্ষীরা খবর পান, জয়সলমীরের কাছে সীমান্ত লাগোয়া এক গ্রাম গুঙ্গে কি বস্তিতে লুকিয়ে আছে আইএসআই চর নবাব খান ওরফে নাবিয়া। মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে। ৩৬ বছরের নবাব খান জয়সলমীরেরই বাসিন্দা। নিরাপত্তারক্ষীরা জানতে পেরেছেন, পাকিস্তান থেকে ২২ দিন ধরে প্রশিক্ষণ নেওয়ার পরেই ভারতে প্রবেশ করে নাবিয়া। এখান থেকেই ভারতীয় সেনাবাহিনীর গোপন তথ্য পাক রেঞ্জার্সদের হাতে তুলে দিত নবাব খান।

১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামাতে সিআরপিএফ কনভয়ে আত্মঘাতী হামলার সঙ্গে কোনও ভাবে নবাব খান যুক্ত কিনা, সে ব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছেন নিরাপত্তারক্ষীরা। তবে সেনা সূত্রে খবর, পুলওয়ামা হামলার পর ভারতীয় সেনা কীভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে, সে ব্যাপারে খবর পাঠানোর জন্য নাবিয়াকে বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে পাঠানো হয়েছিল। এ ছাড়াও আর কোনও নাশকতা ঘটানোর ছক সে করছিল কিনা, সে ব্যাপারে জেরা করা হচ্ছে নাবিয়াকে। তার ফোন-সহ অন্যান্য জিনিস বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গোয়েন্দা দফতরের এডিজি উমেশ মিশ্র জানিয়েছেন, একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য গত বছর নবাব খান ও তার পরিবার পাকিস্তানে যায়। সেখানেই আইএসআই-এর সঙ্গে যোগাযোগ হয় তার। তার পরিবার ভারতে ফিরে এলেও নবাব ফেরেনি। সেখানেই একটি জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবিরে ২২ ধরে প্রশিক্ষণ নেয় সে। তারপরেই ভারতে ফেরে নবাব। ভারতে এসে রাজস্থান সীমান্তে ভারতীয় সেনার গতিবিধির উপর নবাব নজর রাখছিল বলে সেনা সূত্রে খবর। যেসব তথ্য সে পাচ্ছিল, তা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে পাঠিয়ে দিচ্ছিল পাকিস্তানে। বদলে একটা মোটা টাকা তার অ্যাকাউন্টে ঢুকছিল। প্রথমে এই টাকা ঢোকা দেখেই সন্দেহ হয় সেনার। তারপর খোঁজ নিয়ে পুরো ব্যাপারটা জানা যায়। তারপরেই গ্রেফতার হয় এই আইএসআই চর।

আরও পড়ুন

চিন-পাকিস্তান সামরিক বোঝাপড়া! অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান বানাতে পাকিস্তানকে সাহায্য করছে চিন

Shares

Comments are closed.