বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

মূত্র অমূল্য, ইউরিয়া আছে, জ্বালানিও হতে পারে, বললেন গড়কড়ি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সবাই যখন এক ভাবেন, তাঁর ভাবনা সে সবের থেকে অনেক দূরে। এঁর আগেও ভুরি ভুরি এ রকম ভাবনার উদাহরণ রয়েছে তাঁর। এ বার সেই তিনিই কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি বিজ্ঞান গবেষণার সঙ্গে যুক্ত বেশ কিছু তরুণকে তাঁর ভাবনার কথা জানালেন। তিনি বলেন ইউরিন থেকে আসে ইউরিয়া। তাই আমাদের উচিত মূত্র সংরক্ষণ করা।

গোমূত্র নিয়ে বিজেপি-র শীর্ষ নেতাদের নানান তত্ত্বের কথা এতদিনে গোটা দেশ জেনে গিয়েছে। কিন্তু নীতিনের বক্তব্য, মানুষের মূত্র দিয়েও তৈরি হতে পারে জৈব-জ্বালানি। মানুষের মূত্র থেকে অফুরন্ত অ্যামোনিয়াম সালফেট পাওয়া যায় বলেও তাঁর দাবি।

রবিবার বিজেপি-র প্রাক্তন সভাপতি গিয়েছিলেন নাগপুর কর্পোরেশনের একটি অনুষ্ঠানে। সেখানে কর্পোরেশনের তরফে অভিনব বিজ্ঞান ভাবনার জন্য তরুণদের পুরষ্কৃত করার অনুষ্ঠান ছিল। সেখানেই গড়কড়ি বলেন, “আমি বলেছি বিমানবন্দরগুলিতে মূত্র সংরক্ষণ শুরু করতে। আমরা দুবাই থেকে ইউরিয়া আমদানি করি। দেশে যদি মূত্র সংরক্ষণ শুরু হয় তা হলে আর ভারতকে বাইরে থেকে আমদানি করতে হবে না”

মূত্র নিয়ে এঁর আগেও তিনি এই তত্ত্বের কথা বলেছিলেন। বছর কয়েক আগে একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, তাঁর বাগানে ফার্টিলাইজার হিসেবে তিনি নিজের মূত্র ব্যবহার করেন। গতানুগতিক ভাবনার বাইরে মানুষকে বেরোতে দেওয়া হচ্ছে না বলেও তাঁর আক্ষেপ ঝরে পড়ে রবিবারের বক্তৃতায়। মন্ত্রী বলেন, “আমরা ভাবনাগুলি  এতটাই অভিনব যে কেউ প্রয়োগই করতে চায় না।”

এমনিতে মানব মূত্রে ইউরিয়ার স্বাভাবিক পরিমাণ ২ শতাংশ। ৯১ থেকে ৯৬ শতাংশ জল, তার সঙ্গে ইউরিয়া, সোডিয়াম, সালফেট, পটাসিয়াম-সহ বিভিন্ন উপাদান থাকে।

শুধু মূত্র নয়, ফার্টিলাইজার হিসেবে মানুষের চুলও ব্যবহার করা যায় বলে জানিয়েছেন গড়কড়ি। তাঁর কথায়, তিনি নিজের জমিতে চাষের জন্য প্রতিমাসে তিরুপতি থেকে ট্রাকে করে চুল আনেন। এবং এই পদ্ধতিতে জমির উর্বরতা ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে অয়ারে বলেও জানান গড়কড়ি।

 

Comments are closed.