শুক্রবার, নভেম্বর ২২
TheWall
TheWall

পাকিস্তানকে জল দেওয়া বন্ধ করে দেব, হরিয়ানায় হুঙ্কার মোদীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো : আর এক সপ্তাহও বাকি নেই হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনে। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সব দল। এর মধ্যেই হরিয়ানায় ভোট প্রচারে গিয়ে সেখানকার চাষিদের জন্য সুখবর শোনালেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বললেন, পাকিস্তানকে জল দেওয়া বন্ধ করে দেব। সেই জল এ বার থেকে হরিয়ানা ও পঞ্জাবের চাষিরা পাবেন বলেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মোদী।

মঙ্গলবার হরিয়ানার হিসারে নির্বাচনী জনসভায় গিয়েছিলেন মোদী। সেখানে নিজের বক্তব্য রাখতে গিয়ে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “৭০ বছর ধরে হরিয়ানা ও পঞ্জাবের চাষিদের ভাগের জল চলে গিয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু মোদী সেটা আটকে দেবে। আপনাদের ঘরে পৌঁছবে ওই জল। ওই জল হরিয়ানা ও পঞ্জাবের কৃষকদের। আপনাদের জন্য লড়াই করছি।”

শুধু তাই নয় সেখানেও কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলে এনে কংগ্রেসের সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “যখন দেশ কোনও সম্মান পায়, কংগ্রেস তাকে নিয়ে কটাক্ষ করে। এমনকি জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ নিয়েও ওদের সমস্যা। নির্বাচনে কেউ জিতুক-হারুক রাজনীতি চলবেই। কিন্তু কতদিন আমরা সন্ত্রাসবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ে রাজনীতি করব? যতদিন না তাদের হাতে আমাদের দেশের জওয়ানরা শহিদ হয়?”

সূত্রের খবর, ভারত থেকে জল যাতে পাকিস্তানে না যায় তার জন্য ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছে কেন্দ্র। সিন্ধুর জল আটকানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে। সিন্ধুর অতিরিক্ত জলকে রাভি নদীতে ফেলে জলের সমস্যা মেটানোর চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। ভারতের এই চিন্তাভাবনা নিয়ে ওয়াকিবহাল পাকিস্তানও। এই ধরনের সমস্যা হলে যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলেই অভিযোগ জানিয়েছে ইসলামাবাদ।

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরে রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, নির্বাচনী প্রচারে এক ঢিলে দুই পাখি মারার চেষ্টা করলেন মোদী। কারণ শতদ্রু নদীর জল নিয়ে পঞ্জাব ও হরিয়ানার মধ্যে বিবাদ অনেক পুরনো। এই দুই রাজ্যে জলসঙ্কট মেটানোর আশ্বাস দিয়ে দুই রাজ্যের মানুষেরই মন জয় করার চেষ্টা করলেন মোদী।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

কিছু মৃত্যু হবেই, তবুও বন্ধ হবে না পর্বতারোহণ, আকর্ষণ যে দুর্নিবার

Comments are closed.