শনিবার, জুলাই ২০

‘বিজেপিকে ভোট দিন’, অনুরোধ হবু দম্পতির, বিয়ের কার্ডেই হাজির ‘রাফায়েল চুক্তি’

দ্য ওয়াল ব্যুরো :  একটা সাদামাটা দেখতে বিয়ের কার্ড। উপরে হবু বর-বউয়ের নাম লেখা। গণেশের ছবি দেওয়া। কিন্তু কার্ডের নীচের দিকে চোখ পড়লেই চমক। নিমন্ত্রিত অতিথিরা কেউ যেন কোনও উপহার না আনেন, সেই আর্জিই জানিয়েছেন হবু দম্পতি। কিন্তু তার বদলে করা হয়েছে এক অন্য আর্জি। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদী তথা বিজেপি’কে ভোট দেওয়ার আর্জি জানানো হয়েছে এই বিয়ের কার্ডে।

আরও পড়ুন শিলচরে হিন্দুত্ববাদীদের হাতে আক্রান্ত কবি শ্রীজাত

এই ঘটনা ঘটেছে গুজরাটের সুরাটে। সেখানকার বাসিন্দা যুবরাজ ও সাক্ষী তাঁদের বিয়ের কার্ডে এই অভিনবত্ব নিয়ে এসেছেন। কার্ডের প্রথম পেজে নীচের দিকে লেখা আছে, “প্রত্যেকের কাছে আমাদের বিয়ের একটাই উপহারের আবেদন জানাচ্ছি। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে ভোট দিন। সেইসঙ্গে আর্থিক সাহায্য করতেই হলে ‘নমো’ অ্যাপ ব্যবহার করে বিজেপি’কে আর্থিক সাহায্য করুন।”

ভিতরের পেজে আরও চমক। বেশ কিছুদিন ধরে চলে আসা সরকার ও বিরোধীদের প্রধান বিতর্কের বিষয় ‘রাফায়েল চুক্তি’ উপস্থিত বিয়ের কার্ডেও। ভিতরের পেজে সবিস্তারে লেখা রয়েছে রাফায়েল চুক্তির বিষয়ে। উপরে লেখা, ‘শান্ত থাকুন ও মোদীকে ভরসা করুন।’ তার নীচে রাফায়েল চুক্তি নিয়ে ন’টি তথ্য দিয়েছেন এই দম্পতি।

প্রথম পয়েন্টেই লেখা রয়েছে, একজন বোকাও বুঝতে পারবে একটা সাধারণ বিমান ও একটা যুদ্ধবিমানের দামের কখনও তুলনা করা যায় না। তারপর একাধিক তথ্য ও সংখ্যা দিয়ে রাফায়েল চুক্তি নিয়ে মোদী সরকারের কাজকর্মকে সমর্থন জানিয়েছেন যুবরাজ ও সাক্ষী। কেন রিলায়েন্সকে এই যুদ্ধবিমান তৈরির অফসেট পার্টনার হিসেবে ঠিক করা হলো, তারও কারণ বলা হয়েছে। এমনকী ইউপিএ সরকারের আমলে যে চুক্তি হয়েছিল তা কেন বাতিল হয়েছে এবং কংগ্রেস এই রাফায়েল মামলায় জেপিসি’র যে দাবি জানিয়েছে, তার অনুমতি কেন দেওয়া উচিত নয় তার কারণও লেখা রয়েছে বিয়ের কার্ডেই।

আর এই বিয়ের কার্ড হাতে পেয়ে চমকেছেন নিমন্ত্রিতরা। অনেকের বক্তব্য, যাঁদের রাজনীতি নিয়ে কৌতূহল নেই, তাঁরাও এই কার্ড হাতে পেয়ে রাফায়েল চুক্তি নিয়ে সবটা বুঝে যাবেন। অনেকে আবার মস্করা করে বলেছেন, যুবরাজ ও সাক্ষীর উচিত ছিল একটা কার্ড প্রধানমন্ত্রীর দফতরে পাঠানো। মোদী হয়তো নিজেই উপস্থিত থাকতেন বিয়েতে।

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও বিয়ের কার্ডে মোদী উপস্থিৎ থেকেছেন। সুরাটেরই আরেক দম্পতি ধবল ও জয়া তাঁদের বিয়ের কার্ডেও মোদীকে ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। তবে সেই কার্ডকেও ছাপিয়ে গেল এই বিয়ের কার্ড। শুধু আহ্বান জানানোই নয়, কেন ভোট দেবেন, তার কারণও যে লেখা রয়েছে বিয়ের কার্ডেই।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

 

 

Comments are closed.