মেয়েদের ভাতা, বয়স্কদের আশ্রয়, ভোট ঘোষণা হতেই সাত দফা পরিকল্পনা নীতীশের

২৯

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ শুক্রবার বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের সূচি ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। আর তারপরেই প্রচারের পরিকল্পনা সাড়া লালুপ্রসাদ যাদবের দল আরজেডি থেকে শুরু করে নীতীশ কুমারের দল জেডিইউর। ইতিমধ্যেই বিহারের মানুষদের জন্য স্লোগান তুলে দিয়েছেন লালুপ্রসাদ। বলেছেন ‘উঠো বিহারী, করো তৈয়ারি।’ তার বদলে এবার সাত দফা পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করলেন নীতীশ কুমার।

শুক্রবার সংবাদমাধ্যমের সামনে এই পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন বিহারের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী। এই পরিকল্পনার নাম ‘সাথ নিশ্চয় পার্ট ২।’ গতবার নির্বাচনের আগে পার্ট ১ ঘোষণা করেছিলেন তিনি। এটাই এগিয়ে নিয়ে যেতে চান মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর নেতৃত্বে এনডিএ জোট বিহারের ক্ষমতায় ফিরে এলে এই সাতটি ঘোষণা অনুযায়ী কাজ হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

এই পরিকল্পনার শুরুতেই মেয়েদের জন্য ভাতার কথা বলেছেন নীতীশ। যেসব মেয়েরা উচ্চমাধ্যমিক পাশ করবে তাদের প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা করে ও যারা গ্রাজুয়েশন শেষ করবে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। রাজ্যের প্রতিটি জমিতে সেচ দফতরের একাধিক সুবিধা দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

নীতীশ জানিয়েছেন, রাজ্যের সব তরুণ-তরুণীদের সরকারি চাকরি দেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু প্রত্যেক জেলায় একটি করে শিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি করা হবে। সেখানে সবাইকে নতুন নতুন বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হবে যাতে পরবর্তীকালে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে তারা সুবিধা পায়।

বিহারের প্রতিটি গ্রামে সৌরবিদ্যুৎ চালিত আলো ও গ্রামীণ এলাকায় বর্জ্য পদার্থ প্রক্রিয়াকরণের প্ল্যান্ট বসানো হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নীতীশ কুমার। এছাড়া রাজ্যের সব শহর ও নগর এলাকায় ড্রেনেজ ব্যবস্থা আরও ভাল করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। বয়স্ক মানুষদের জন্য আশ্রয় ও শহরের গরিব মানুষদের জন্য আরও আবাসন গড়ে তোলা হবে বলেও জানিয়েছেন নীতীশ কুমার। তিনি ভোটে জিতে ফের ক্ষমতায় এলে আরও বেশি শ্মশান তৈরি করার ও স্বাস্থ্য পরিষেবা আরও উন্নত করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি। তাছাড়া শহরের যানজট এড়ানোর জন্য আরও বেশি ফ্লাইওভার ও বাইপাস তৈরি করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তবে এই ঘোষণায় কিছুটা হলেও বিরক্ত হতে পারে বিহারে নীতীশের জোটসঙ্গী রামবিলাস পাসোয়ানের লোক জনশক্তি পার্টি। কারণ গত নির্বাচনে কংগ্রেস ও আরজেডির সঙ্গে জোটবদ্ধ অবস্থায় আগের পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছিলেন নীতীশ। তাই তার দ্বিতীয় পার্ট ঘোষণা করে তিনি এনডিএ জোটের উপরেই চাপ বাড়ালেন বলে মনে করছেন অনেকে। যদিও জোটের একাংশের ধারণা, নিশ্চয় জোটের নেতৃত্বের থেকে সবুজ সঙ্কেত পেয়েছেন নীতীশ। নইলে এভাবে প্রতিশ্রুতি দিতেন না নীতীশ।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More