বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

মোদীকে খোঁচা? ভাঁওতা দিলে পিটুনি জুটতে পারে কপালে, বললেন গড়কড়ি

  • 2.5K
  •  
  •  
    2.5K
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উনিশের ভোটের আগে হিন্দিবলয়ের তিন রাজ্যে পরাজয়ের ফলে মোদী-অমিত শাহ জুটি যখন কিছুটা চাপের মুখে পড়েছেন, তখন ইদানীং দৃশ্যত মুখর কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহণ মন্ত্রী নিতিন গড়কড়ি। হাসি হাসি মুখ! রসিয়ে রসিয়ে এমন কথা বলছেন, যা অর্থ করতে অসুবিধা হচ্ছে না কারও। এবং মনে করা হচ্ছে, সঙ্ঘ পরিবারের উস্কানিতেই মোদীকে নিয়মিত খোঁচা মেরে চলেছেন প্রাক্তন এই বিজেপি সভাপতি।

রবিবার নতুন খোঁচা দিয়েছেন, গড়কড়ি। নরেন্দ্র মোদীর নাম মুখে আনেনি। কিন্তু বলেন, “স্বপ্ন দেখাতে নেতারা ভালবাসেন। কিন্তু স্বপ্নপূরণ করতে না পারলে, জনতা তাদের পিটুনিও দেয়। তাই এমন স্বপ্ন দেখাও যে পূরণ করতে পারবে।” এখানেই না থেমে গড়কড়ি আরও বলেন, “আমি স্বপ্ন দেখানোদের দলে নেই, তবে যা বলি, ডঙ্কা বাজিয়ে করে দেখাই”।

নিতিনের এই মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক শিবির। চোদ্দর ভোটের আগে মোদী যে সব স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন, তার অধিকাংশই পূরণ হয়নি। কৃষকদের উৎপাদন খরচের উপর ৫০ শতাংশ মুনাফা যেমন নিশ্চিত করতে পারেননি, তেমনই বছরে ২ কোটি বেকার যুবকের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরিতেও ব্যর্থ হয়েছেন। তা ছাড়া বিদেশ থেকে কালো টাকা উদ্ধার সহ তাঁর সহস্র প্রতিশ্রুতি কার্যত ভোটের জুমলায় পর্যবসিত হয়েছে বলে বিরোধীদের মত। গড়কড়ি সে দিকেই আঙুল দেখাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

বরাবরই নাগপুরে সঙ্ঘ পরিবারের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছের লোক গড়কড়ি। সঙ্ঘ পরিবারের আশীর্ব্বাদে অতীতে সর্বভারতীয় বিজেপি-র সভাপতিও হয়েছেন। অনেকে মনে করছেন, সঙ্ঘই চাইছে না মোদী ফের প্রধানমন্ত্রী হোন। মোদীর প্রতি মোহভঙ্গ হয়েছে মোহন ভাগবতের। তাই নিতিন গড়কড়ির মতো নেতাদের দিয়ে মোদী ও তাঁর সরকারের নীতির সমালোচনায় অবতীর্ণ হয়েছেন সঙ্ঘ নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: মূল্যবৃদ্ধি, বেকারি বাড়ছে, ভুগতে হবে সবাইকে, বললেন আরএসএস প্রধান

এমন ধারনা একেবারে ভিত্তিহীনও নয়। দিন দশেক আগে খোদ মোহন ভাগবত দেশে বেকারত্ব ও মূল্যবৃদ্ধি পরিস্থিতি নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন। বলেছিলেন, ভুল নীতির কারণেই এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। কিন্তু এই নীতি আমি তৈরি করি না, আপনিও (পড়ুন জনতা) করেননি।

অনেকে আবার মনে করছেন, সঙ্ঘ নেতৃত্ব ধরেই নিয়েছে বিজেপি এ বার ভোটে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। তবে বিজেপি-র নেতৃত্বে কেন্দ্রে জোট সরকার হতে পারে। সে ক্ষেত্রে অবশ্য মোদীর নেতৃত্ব মানতে রাজি হবেন না শরিকরা। বরং নিতিন গড়কড়ি তুলনায় গ্রহণযোগ্য বলে বিবেচিত হতে পারেন।

এই অবস্থায় নিতিন গড়কড়ির মন্তব্য নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি কংগ্রেস মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদি। তিনি বলেন, “জাহাঁ তেরি ইয়ে নজর হ্যায়/ গড়কড়িজি হামে খবর হ্যায়।”

আরও পড়ুন

মূল্যবৃদ্ধি, বেকারি বাড়ছে, ভুগতে হবে সবাইকে, বললেন আরএসএস প্রধান

আরও পড়ুন

প্রিয়ঙ্কার একটা অসুখ আছে, লোককে ধরে পিটিয়ে দেন,  সুব্রহ্মন্যম স্বামীর মন্তব্যে সমালোচনার ঝড়

Comments are closed.