দেশে দৈনিক সংক্রমণ ফের ৫০ হাজার ছাড়াল, তবে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের থেকে বেশি সুস্থতার সংখ্যা

২৯১

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গতকাল ভারতে দৈনিক করোনা সংক্রমণ কমেছিল উল্লেখযোগ্যভাবে। একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা নেমে গিয়েছিল ৪৭ হাজারের নীচে। কিন্তু বুধবার ফের তা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেল। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪ হাজারের কিছু বেশি। এর ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৭৬ লাখ পেরিয়ে গিয়েছে। বেড়েছে দৈনিক মৃত্যুও। গতকাল দৈনিক মৃত্যু নেমেছিল ৬০০-র নীচে। গত ২৪ ঘণ্টায় তা ৭০০-র বেশি হয়েছে। অবশ্য এখনও দৈনিক আক্রান্তের থেকে বেশি দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ৬২ হাজার মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। ফলে মোট সুস্থতার সংখ্যা প্রায় ৬৮ লাখ।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫৪ হাজার ৪৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে ২১ অক্টোবর, বুধবার, সকাল ৮টা পর্যন্ত ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৬ লাখ ৫১ হাজার ১০৭ জন।

গতকাল ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। কিন্তু গত ২৪ ঘণ্টায় তা ফের বেড়েছে। বুলেটিন জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৭১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ১৫ হাজার ৯১৪ জন। ভারতে করোনায় মৃত্যুহার ১.৫১ শতাংশ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে উঠেছেন ৬১ হাজার ৭৭৫ জন। ভারতে মোট সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তির সংখ্যা ৬৭ লাখ ৯৫ হাজার ১০৩ জন। এই মুহূর্তে দেশে সুস্থতার হার ৮৮.৮১ শতাংশ। অর্থাৎ এই মুহূর্তে দেশে কোভিড অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৭ লাখ ৪০ হাজার ৯০ জন। মোট আক্রান্তের ৯.৬৭ শতাংশ রোগী এই মুহূর্তে অ্যাকটিভ রয়েছেন।

ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা সবথেকে বেশি মহারাষ্ট্রে। এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ লাখ ৯ হাজার ৫১৬ জন। মহারাষ্ট্রে কোভিডে মারা গিয়েছেন ৪২ হাজার ৪৫৩ জন। তবে এর মধ্যেই এই রাজ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৩ লাখ ৯২ হাজার ৩০৮ জন। অর্থাৎ এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৪ হাজার ৭৫৫ জন।

আক্রান্তের সংখ্যায় মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। দক্ষিণের এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৮৯ হাজার ৫৫৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬৪৮১ জনের। আক্রান্তের সংখ্যায় তিন নম্বরে রয়েছে কর্নাটক। এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৭৬ হাজার ৯০১ জন। মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৬০৮ জনের। চার নম্বরে রয়েছে তামিলনাড়ু। এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৯৪ হাজার ৩০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৭৪১ জনের। পাঁচ নম্বরে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৫৯ হাজার ১৫৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬৭১৪ জনের। ছ’নম্বরে রয়েছে দিল্লি। রাজধানীতে এই মুহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৭৫০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬০৮১ জনের।

মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ ও দিল্লি, এই ছয় রাজ্যেই মোট আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৪৬ লাখের বেশি। এই রাজ্যগুলি মিলিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ লাখ ৬৫ হাজার ৯০৪ জন। এই সংখ্যা দেশের মোট আক্রান্তের ৬০.৯৮ শতাংশ। এই ছয় রাজ্য মিলিয়ে মোট ৮৩ হাজার ৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা দেশের মোট মৃত্যুর ৭১.৬৭ শতাংশ।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More