রবিবার, আগস্ট ২৫

গুজরাটের কনস্টেবল যেন ‘হনুমানজি,’ দুই শিশুকে কাঁধে চাপিয়ে বন্যার জল পেরোলেন দেড় কিলোমিটার

দ্য ওয়াল ব্যুরো:  ঠিক যেন ‘হনুমানজি’। সঙ্কটের মুখে ত্রাতার ভূমিকাতেই দেখা গেল গুজরাটের এই কনস্টেবলকে। দু’কাঁধে দুই শিশুকে বসিয়ে, কোমর সমান বন্যার ডল ডিঙিয়ে গেলেন অবলীলায়। শিশু দু’টিকে পৌঁছে দিলেন নিরাপদ আশ্রয়ে। একজন পুলিশ কনস্টেবলের এই কর্তব্য নিষ্ঠার ভিডিয়ো টুইট করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থেকে অনেক নামী দাবি ব্যক্তিত্বই। মানবিকতার এমন নজির দেখে ধন্য ধন্য করেছে গোটা দেশ।

নাম প্রুথভিরাজ সিং। আহমেদাবাদ থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরত্বে  মরবি জেলার কন্যাণপুর গ্রামের একজন পুলিশ কনস্টেবল। বন্যার জল ভাসিয়ে নিয়ে গেছে গোটা গ্রামকেই। ঘর ছাড়া শয়ে শয়ে মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে উদ্ধারকর্তার ভূমিকাতেই দেখা গেছে এই কনস্টেবলকে। ঘর হারা দুই শিশুকে কাঁধে বসিয়ে তিনি পৌঁছে দিয়েছেন তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে। উদ্ধার করেছেন আরও অনেককে।

এই ভিডিয়ো প্রথম নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী।  তিনি লেখেন, “ইউনিফর্ম পরে নিজের কর্তব্যে অবিচল কনস্টেবল। বিপদের মধ্যেও কাজের প্রতি তাঁর নিষ্ঠা ও কঠোর পরিশ্রম অনুপ্রেরণা দেবে সকলকে। ”

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর টুইট অসংখ্যবার রিটুইট হয়েছে। এই টুইট শেয়ার করে কনস্টেবলের প্রশংসা করেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার ভিভিএস লক্ষণও। টুইটে তিনি লিখেছেন, “গুজরাটের কল্যাণপুর গ্রামের কনস্টেবল প্রুথভিরাজ সিংয়ের এই ভিডিয়ো মন জয় করে নিয়েছে। দুই শিশুকে উদ্ধার করার জন্য তাঁর এই নিষ্ঠা ও সাহসকে কুর্নিশ।” কনস্টেবলের সাহসের প্রশংসা করে টুইট করেছেন প্রসার ভারতীর ডিরেক্টর জেনারেল আইএএস সুপ্রিয়া সাহুও।

এর আগে গুজরাটের বডোদরায় বন্যার জলে আটকে পড়া এক পরিবারকে উদ্ধার করতে গিয়ে এক পুলিশ কর্মীকে দেখা দিয়েছিল গামলায় বসিয়ে একটি শিশুকন্যাকে মাথায় করে নিয়ে এক বুক জল পেরোচ্ছেন তিনি। সেই ভিডিয়ো দেখে অনেকেই বলেছিলেন, কৃষ্ণের যমুনা পারের মতোই শিশুকন্যাকে মাথায় করে নিয়ে উদ্ধার করেছেন এক পুলিশ কর্মী।

গত এক সপ্তাহে প্রবল বন্যায় ভাসছে কেরল, কর্ণাটক ও মহারাষ্ট্র। বানভাসি গুজরাটও। ২৪ ঘণ্টায় উপকূলবর্তী এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৬০০০ জনকে। উদ্ধারকাজ শুরু করেছে জাতীয় ও রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দল ও সেনাবাহিনী। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত বডোদরা।  রাস্তায় বৃষ্টির জল দাঁড়িয়ে বন্যার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। রাস্তায় কোথাও কোথাও এক হাঁটু বা তার বেশিও জল জমে রয়েছে। আর সেই জলে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুমির। জল ঢুকে বন্ধ বডোদরা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরও।

Comments are closed.