শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০

বিরোধী মিছিলে ঢুকে পড়ল ষাঁড়, অখিলেশের জবাব, ‘বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে এসেছে’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উত্তরপ্রদেশে সপা-বসপা জোটের মিছিল চলছিল। হঠাৎ করেই আগমন হলো এক ষাঁড়ের। শুধু আসা নয়, রীতিমতো তাণ্ডব শুরু করল সেই ষাঁড়। জনতা পুরো ছত্রভঙ্গ। আর এই ষাঁড় নিয়েই তরজা শুরু হয়েছে উত্তরপ্রদেশের রাজনীতিতে। একদিকে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, গো-হত্যাকারীদের খুঁজে শাস্তি দেওয়ার জন্যই ওই মিছিলে গিয়েছিল ষাঁড়। অন্যদিকে আবার সপা নেতা তথা উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব বলেছেন, বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়েই সেই মিছিলে ঢুকেছিল ষাঁড়।

জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের কনৌজে সপা-বসপা জোটের একটি র‍্যালিতে এই ষাঁড়ের হামলা হয়েছে। এই ব্যাপারে শাহজাহানপুরের একটি র‍্যালি থেকে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, “আমি কনৌজে ছিলাম, যখন দলের লোকেরা এই ঘটনার কথা আমাকে জানায়। আমার মনে হয়, ওই মিছিলে কে কে গো-হত্যাকারী ছিল, তা দেখতে এবং তাদের উচিত শিক্ষা দিতেই ষাঁড়টা সেখানে গিয়েছিল।” আদিত্যনাথ আরও বলেন, “আমি সেই ষাঁড়ের কাছে প্রার্থনা করছি, সে যেন নিজের কাজ ঠিকমতো চালিয়ে যায়। যারা গরিব মানুষের উপর অত্যাচার করছে, তাদের শাস্তি দেওয়ার জন্য আমরা আছি। যারা রাজ্যের উন্নয়ন বন্ধ করার কাজ করেছে, রাজ্যের যুব সম্প্রদায়কে অন্য রাজ্যে যেতে বাধ্য করেছে, তাদের জন্য আমরা আছি।”

সপা নেতা অখিলেশ যাদবের র‍্যালিতেই ঢুকে পড়েছিল এই ষাঁড়। এই প্রসঙ্গে অখিলেশের বক্তব্য, “আসলে ষাঁড়টা এসেছিল বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে। হয়তো ও ভেবেছিল হেলিকপ্টারে করে কোনও নেতা এসেছে। তাই নিজের অভিযোগ জানাতে এসেছিল সে।” পরে আবার টুইট করে তিনি জানান, “আসলে ষাড়ঁটা ঘুড়ে বেড়াচ্ছিল সবার সামনে পশু ও চাষিদের করুণ অবস্থা তুলে ধরার জন্য। কিন্তু ও ভুল জায়গায় চলে এসেছে। ওর অন্য জায়গায় যাওয়া উচিত ছিল।”

ষাঁড়ের এই তাণ্ডবের ভিডিয়োও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ষাঁড়ের ভয়ে ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়ে জনতা। সবাই এদিক ওদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। এমনকী পদপিষ্ট হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থাও হয় সেখানে। কয়েকজন ব্যক্তি ষাঁড়টিকে আটকানোর চেষ্টা করে। কিন্তু তারপরেও কিছু কাজ হয়নি। কিছুক্ষণ থাকার পর অবশ্য সে নিজেই রণে ভঙ্গ দিয়ে সরে যায়।

আরও পড়ুন

গঙ্গার দু’পারে ঝড় তুলতে ফের বাংলায় মোদী

Comments are closed.