শুক্রবার, জুন ২১

কাশ্মীর ও রামমন্দির সমস্যার সমাধান বিজেপিই করবে, ইস্তাহারকে ১০০-এ ২০০ শিবসেনার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বেশ কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিজেপির সঙ্গে মনোমালিন্য হয়েছে মহারাষ্ট্রে তাদের জোটসঙ্গী শিবসেনার। কিন্তু বিজেপির ইস্তাহার প্রকাশের পর সুর বদলে গেল শিবসেনার। এই ইস্তাহারকে ১০০-এ ২০০ দেওয়া হলো শিবসেনার তরফে। বিজেপির ইস্তাহারে জম্মু-কাশ্মীরের ‘বিশেষ রাজ্যের’ তকমা কেড়ে নেওয়া ও রামমন্দির নির্মাণের প্রতিশ্রুতির জন্যই এই নম্বর, এমনটাই জানানো হয়েছে শিবসেনার মুখপত্র সামনাতে।

বুধবার প্রকাশিত এই মুখপত্রে লেখা হয়েছে, দেশের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্বের প্রসঙ্গে কোনও রকমের সমঝোতা করা হবে না। ২০১৯ সালই রামমন্দির নির্মাণের শেষ সুযোগ। আর তাই বিজেপি নিজেদের ইস্তাহারে যে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, তার প্রতিটায় ভারতের উন্নতির জন্য, এমনটাই দাবি করা হয়েছে সামনাতে। এই পত্রিকায় লেখা হয়েছে, “বিজেপির সংকল্প পাত্রে গোটা দেশের মানুষের কথা তুলে ধরা হয়েছে। এমনকী শিবসেনার দাবিকেও এই ইস্তাহারে তুলে ধরা হয়েছে। তাই আমরা এই ইস্তাহারকে ১০০-এ ২০০ দিচ্ছি।”

শুধুমাত্র বিজেপির প্রশংসা করাই নয়, কাশ্মীরের রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল কনফারেন্স ও পিডিপিকেও একহাত নিয়েছে শিবসেনা। কয়েকদিন আগেই কাশ্মীরের এই দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের নেতারা দাবি করেছিলেন, কাশ্মীরের উপর থেকে ‘বিশেষ রাজ্যের’ তকমা সরিয়ে নিলে ভারতের সঙ্গে কাশ্মীরের আর কোনও সম্পর্ক থাকবে না। সেক্ষেত্রে কাশ্মীরের আলাদা প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি ও সংবিধান হবে। এই প্রসঙ্গে শিবসেনার মুখপত্রে বলা হয়েছে, “ফারুখ আবদুল্লাহ ভয় দেখাচ্ছেন কাশ্মীরের উপর থেকে সংবিধানের ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা সরিয়ে নিলে তারপর কে সেখানে ভারতের পতাকা তোলেন, তা নাকি তাঁরা দেখে নেবেন। এই ধরণের লোকের জিভ কেটে নেওয়া উচিত।”

মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের লাতুরে ভোট প্রচারে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছিলেন, যেসব বীর সেনানী পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গিদের মেরেছেন, তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা থাকলে মানুষের উচিত বিজেপিকে ভোট দেওয়া। মোদীর এই মন্তব্যের জন্য নির্বাচন কমিশনেরও দ্বারস্থ হয়েছে বিরোধীরা। প্রধানমন্ত্রীর কাছে নির্বাচনী বিধিভঙ্গের জন্য এই মন্তব্যের ব্যাখ্যাও চেয়েছে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু এই প্রসঙ্গে বিজেপির সঙ্গে রয়েছে শিবসেনা। সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে বলেছেন, বিজেপির এই ইস্তাহারে একদিকে যেমন কৃষি, দারিদ্র, ছোট শিল্পপতি, শিক্ষার উপর নজর দেওয়া হয়েছে, তেমনই অন্যদিকে রামমন্দির ও কাশ্মীরের বিশেষ রাজ্যের তকমার ব্যাপারেও নজর দেওয়া হয়েছে। এই ইস্তাহার হলো সার্বিক ইস্তাহার। আর তাই আসন্ন লোকসভায় বিজেপির সঙ্গেই রয়েছে শিবসেনা, এমনটাই দাবি দলের তরফে।

আরও পড়ুন

একদম একশো ভাগ ভোট চাই তৃণমূলে, নির্দেশ শোনা গেল অডিও ক্লিপে

Comments are closed.