শনিবার, আগস্ট ২৪

প্রথম ভারতীয় বিমানসংস্থা হিসেবে উত্তর মেরুর উপর দিয়ে উড়বে এয়ার ইন্ডিয়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভারতের বিমান পরিষেবায় নতুন দিক খুলতে চলেছে এয়ার ইন্ডিয়া। প্রথম ভারতীয় বিমানসংস্থা হিসেবে উত্তর মেরুর উপর দিয়ে উড়তে চলেছে এয়ার ইন্ডিয়া। সবকিছু ঠিক থাকলে এ মাসের শেষ থেকেই এয়ার ইন্ডিয়ার সান ফ্রান্সিস্কো গামী বিমান এই পথে চলাচল করবে, এমনটাই জানিয়েছে ডিরেক্টর জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন ( ডিজিসিএ )।

ডিজিসিএ-র তরফে উত্তর মেরুর উপর দিয়ে ওড়ার জন্য কোনও ভারতীয় বিমানসংস্থা ইচ্ছুক কিনা, সে ব্যাপারে একটু সার্কুলার জারি করা হয়েছিল। তাতে ইচ্ছে প্রকাশ করেছে এয়ার ইন্ডিয়া।

আন্তর্জাতিক অনেক বিমানসংস্থা উত্তর মেরুর উপর দিয়ে উড়লেও ভারতীয় কোনও বিমানসংস্থা এখনও পর্যন্ত সেই পথ ব্যবহার করেনি। ভারত থেকে আমেরিকাগামী কিছু আন্তর্জাতিক সংস্থা আগে সেই পথ ব্যবহার করলেও এখন তা বন্ধ করে দিয়েছে।

এয়ার ইন্ডিয়ার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “উত্তর মেরুর উপর দিয়ে গেলে বিমানের জ্বালানি ও সময়, দুইই কম লাগে। কিন্তু ওই পথে বিমান ওড়াতে গেলে পাইলটদের অতিরিক্ত দক্ষতা থাকতে হয়। কারণ ওই পথে বায়ুর চাপ অনেক কম থাকে। তাছাড়া জরুরি অবতরণের জন্য বিমানবন্দরের সংখ্যাও কম। উত্তর মেরুর পথ ব্যবহার করতে হলে বিশেষ অনুমতিরও দরকার হয়। যদি ওই পথ ব্যবহার করে খুব একটা সময় না কমে, তাহলে তা ব্যবহার না করা ভালো।”

ভারত থেকে সবথেকে দূরের বিমান পথ হলো আমেরিকার সান ফ্রাসিস্কো। তাই যদি এই পথ উত্তর মেরুর উপর দিয়ে যাওয়া যায়, তাহলে সময় অনেকটা কম লাগবে বলেই জানিয়েছেন ওই আধিকারিক। সান ফ্রান্সিস্কো ছাড়া অন্য কোনও বিমানবন্দর ওই পথে যেতে গেলে আবার সময় কম লাগার থেকে বেড়ে যাবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ডিজিসিএ-র এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “এর আগে কোনও ভারতীয় বিমানসংস্থা ওই পথ ব্যবহার করেনি, কারণ উত্তর মেরুর উপর দিয়ে বিমান ওড়ানোতে অনেক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়। সেগুলো অতিক্রম করতে দক্ষতা লাগে। তাই ঝুঁকি নেয়নি কোনও বিমানসংস্থা।”

বর্তমানে নিউ দিল্লি থেকে সান ফ্রান্সিস্কো গামী বিমান বাংলাদেশ, মায়ানমার, চিন, জাপান, প্রশান্ত মহাসাগর হয়ে আমেরিকায় ঢোকে। কিন্তু এই নতুন পথে নিউ দিল্লি থেকে বিমান কিরঘিজস্তান, কাজাখস্তান, রাশিয়া, সুমেরু সাগর, কানাডা হয়ে আমেরিকাতে ঢুকবে। এর ফলে ১২ হাজার কিলোমিটারের যাত্রাপথ মাত্র ৮ হাজার কিলোমিটারে নেমে আসবে বলেই জানিয়েছেন ডিজিসিএ-র ওই আধিকারিক। তবে তার জন্য সময়ের বিশাল হেরফের হবে না। এই পথে গেলে দেড় ঘণ্টা কম সময়ে সান ফ্রান্সিস্কো পৌঁছবে বিমান, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

যদি এই মাস থেকেই এই নতুন পথ ব্যবহার করা শুরু করে এয়ার ইন্ডিয়া তাহলে তা হবে ভারতের উড়ান পরিষেবায় এক নতুন ঘটনা।

Comments are closed.