জম্মু-কাশ্মীরে যাচ্ছেন ৩৬ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, কথা বলবেন স্থানীয়দের সঙ্গে

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জম্মু-কাশ্মীরের উপর থেকে স্পেশ্যাল স্ট্যাটাস তুলে নেওয়ার পাঁচ মাস পরে ৩৬ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যাচ্ছেন সেখানে। ১৮ থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে সেখানে যাবেন তাঁরা। ইতিমধ্যেই উপত্যকায় ৫৯টি জায়গা নির্বাচন করা হয়েছে। এই জায়গাগুলিতে গিয়ে সেখানকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলবেন তাঁরা।

ইতিমধ্যেই বিজেপির তরফে ৩৬ জনের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যাঁরা যাচ্ছেন তাঁদের মধ্যে রয়েছেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল, আইনমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ, বস্ত্রবয়ন এবং মহিলা ও শিশুকল্যাণমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, স্বাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি, দেবশ্রী চৌধুরী, রমেশ পোখরিয়াল, গিরিরাজ সিং, ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু, অর্জুন মুন্ডা প্রমুখ। কেউ একদিন, কেউ বা দু’দিন থাকবেন সেখানে। নির্বাচন করা ৫৯টি জায়গার মধ্যে ৫১টি জায়গা জম্মুতে। শ্রীনগরের আটটি জায়গায় যাবেন তাঁরা। কে কতগুলি জায়গায় যাবেন তা বলা হলেও কে কোথায় যাচ্ছেন সে সম্পর্কে কিছু বলা হয়নি ওই তালিকায়।

 

সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, সেখানে গিয়ে জনসাধারণের মধ্যে জম্মু-কাশ্মীরের উপর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার সুফল প্রচার করবেন তাঁরা। সেইসঙ্গে বর্তমান মোদী সরকার উপত্যকার মানুষের উন্নয়নের জন্য কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে, সে কথাও জানানো হবে।

উপত্যকার উপর থেকে স্পেশ্যাল স্ট্যাটাস তুলে নেওয়ার পর থেকেই সেখানকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত। এখনও পর্যন্ত গৃহবন্দি হয়ে রয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লাহ, ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতি। তাঁদের সমর্থকরা ক্রমাগত মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন।

এখনও পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরের সব জায়গায় ইন্টারনেট পরিষেবা চালু হয়নি। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর জম্মুর পাঁচটি জেলায় টুজি পরিষেবা ও জম্মু-কাশ্মীরের জরুরি পরিষেবার আওতায় থাকা পর্যটন, হাসপাতাল, ব্যাঙ্ক, হোটেল প্রভৃতি জায়গায় ব্রডব্যান্ড পরিষেবা চালু করা হয়েছে। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, এই পরিস্থিতিতে সন্ত্রাসমূলক কাজ আটকানোর জন্যই এই ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করা হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে কয়েক দিন আগেই আন্তর্জাতিক ডেলিগেটদের ১৫ জনের একটি দলকে জম্মু-কাশ্মীরে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। দু’দিন সেখানে ছিলেন তাঁরা। এই ঘটনার পরেও বিরোধীরা তোপ দেগেছিল। কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ করা হয়েছিল, বিদেশি অতিথিদের জম্মু-কাশ্মীরে যাওয়ার অধিকার থাকলেও দেশের বিরোধী রাজনৈতিক নেতাদের সেখানে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। এর মধ্যেই এবার ৩৬ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে উপত্যকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিল মোদী সরকার।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More