রবিবার, ডিসেম্বর ৮
TheWall
TheWall

দূষণ! হাজারো পরিযায়ী পাখির মৃত্যু রাজস্থানের সম্ভর লেকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজস্থানের জয়পুরে সম্ভর লেকের অদূরে মিলল হাজারো মৃত পরিযায়ী পাখি। মঙ্গলবার সকালে মরা পাখি পড়ে থাকতে দেখে প্রশাসনকে খবর দেন স্থানীয়রা। গোটা ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পড়ে গিয়েছে সম্ভর লেকের নোনা জল। মনে করা হচ্ছে জলে দূষণের কারণেই পাখিদের মৃত্যু হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলেনি রাজস্থান সরকারের বন্যপ্রাণী বিভাগ। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, পাখিগুলির দেহ পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট এলে তবেই মৃত্যুর কারণ বোঝা যাবে।

স্থানীয়দের বক্তব্য, প্রায় ৫ হাজার পরিযায়ী পাখির মৃত্যু হয়েছে। যদিও সরকারি ভাবে জানানো হয়েছে, এখনও পর্যন্ত দেড় হাজারের মতো পাখি মারা গিয়েছে।

লেক থেকে ১২-১৩ কিলোমিটারের মধ্যে এই পাখিগুলিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে। প্রতিবছরই অক্টোবরের শেষ দিকে সাইবেরিয়া থেকে পরিযায়ী পাখিদের ঝাঁক আসতে শুরু করে রাজস্থানের এই লেকে। যার মধ্যে অধিকাংশটাই ফ্লেমিঙ্গো। জানা গিয়েছে মৃত পাখিগুলির মধ্যে রয়েছে কুট, ব্ল্যাক উইংড, স্টিল্ট, নর্দার্ন শোভেলার্স, রুডি শেলডাকের মতো পাখি।

একটি মেডিক্যাল টিম গিয়ে মৃত পাখিগুলিকে সংগ্রহ করার পর পরীক্ষার জন্য ভোপালে পাঠিয়েছে। বন অধিকর্তা রাজেন্দ্র জখর সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “কয়েকদিন আগে ওই এলাকায় শিলাবৃষ্টি হয়েছিল। সেই কারণেও এই পাখিগুলির মৃত্যু হতে পারে।” অশোক রাও নামের এক প্রাণী চিকিৎসক জানিয়েছেন, “অনেক সময়ে পরিযায়ী পাখিদের মধ্যে বার্ড ফ্লুর প্রবণতা থাকে। সেই কারনেও মৃত্যু হতে পারে।”

প্রশাসনের কর্তাদের বক্তব্য, গোটা ঘটনায় জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ করা হচ্ছে। যে পরীক্ষাগারে পাখিগুলির দেহ পরীক্ষা করা হয়েছে তার অধিকর্তা সঞ্জয় শর্মা বলেন, “কী কারণে মৃত্যু আগে সেটা জানতে হবে। সেটা না করতে পারলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করাও সম্ভব হবে না।”

পরিযায়ী পাখি দেখার জন্য পর্যটক ও পক্ষীপ্রেমীদের ভিড় জমে যায় সম্ভর লেকে। স্থানীয়দের বক্তব্য, এত পাখির মৃত্যুর পর অন্যরাও এই এলাকা ছেড়ে অন্যত্র উড়ে যেতে শুরু করেছে। অন্য বছর এই সময়ে বিদেশি পাখিতে গিজগিজ করে সম্ভর লেক। কিন্তু এখন অনেকটাই ফাঁকা ফঁকা।

Comments are closed.