বৃহস্পতিবার, জুন ২০

উত্তরপ্রদেশে জোটে থাকি বা না থাকি, বিজেপি হারছেই: রাহুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শনিবারই উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসকে বাদ দিয়ে জোট ঘোষণা করেছে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টি। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বললেন, আগামী লোকসভা নির্বাচনে আমাদের দল সবাইকে চমকে দেবে!

রাহুল দুবাইয়ে এক সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “বিএসপি এবং সমাজবাদী পার্টির অবশ্যই জোট গড়ার অধিকার আছে। এখন কংগ্রেসকে একাই লড়তে হবে উত্তরপ্রদেশে”।

তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, বিএসপি ও সমাজবাদী পার্টি যেভাবে কংগ্রেসকে জোট থেকে বাদ দিয়েছে তা কি দলের কাছে বড় ধাক্কা নয়? তিনি বলেন, “কংগ্রেস একাই লড়ুক অথবা বিএসপি, সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জোট বাঁধুক, ফল হবে একই। বিজেপি আর আগের মতো আসন পাবে না”।

পর্যবেক্ষকদের মতে, রাহুলের এই মন্তব্য থেকে বোঝা যায়, উত্তরপ্রদেশে মায়াবতী-অখিলেশের সঙ্গে কংগ্রেসেরও বোঝাপড়া আছে। খুব পরিকল্পনামাফিক কংগ্রেসকে বাদ দেওয়া হয়েছে জোট থেকে। উত্তরপ্রদেশে ৮০ টি আসনের মধ্যে ৩৮ টিতে প্রার্থী দেবেন মায়াবতী। আরও ৩৮ টিতে দেবেন অখিলেশ। বাকি দু’টি আসন ছাড়া হয়েছে দুই দলের জোটসঙ্গী আরএলডিকে। এইভাবে রাজ্যে বিজেপিকে হারানোর দায়িত্ব নিয়েছে বিএসপি এবং এসপি। জাতীয় স্তরে বিজেপির সঙ্গে লড়াইয়ের দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়া হয়েছে কংগ্রেসের ওপরে।

একটি সূত্রের মতে, উত্তরপ্রদেশে ভোটে যত মেরুকরণ হবে, তত সুবিধা হবে বিজেপির। কংগ্রেস, সপা ও বসপা যদি মহাজোট গড়ে, তাহলে মেরুকরণ আরও সহজ হয়ে যাবে। কিন্তু কংগ্রেস যদি আলাদা লড়ে তাহলে জাতপাতের অঙ্কে সুবিধা হবে মায়াবতী-অখিলেশের। আবার কংগ্রেসও কিছু আসনে ফায়দা পাবে। ভুলে গেলে চলবে না, কোনও রকম মজবুত সংগঠন ছাড়াই ২০০৯ সালের লোকসভা ভোটে উত্তরপ্রদেশে একা লড়ে ২১টি আসন পেয়েছিল কংগ্রেস।

এদিন মায়াবতী সাংবাদিক বৈঠক করে কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি ব্যাখ্যা করেন কেন কংগ্রেসকে জোটে নেওয়া হয়নি। রাহুলকে এসম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, তিনি কংগ্রেসের বিরুদ্ধে যা বলেছেন তা ঠিক নয়। যাই হোক, তাতে আমাদের খুব একটা অসুবিধা হবে না।

উত্তরপ্রদেশের ভোট সম্পর্কে রাহুল বলেন, আমরা অবশ্যই সেখানে ভোটে লড়াই করব। আমরা লড়ব আমাদের মতাদর্শের ভিত্তিতে।

কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা সত্ত্বেও মায়াবতী-অখিলেশ স্থির করেছেন, রায়বেরিলিতে প্রাক্তন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী এবং অমেঠিতে রাহুলের বিরুদ্ধে কোনও প্রার্থী দেবেন না।

উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেস নেতারাও মায়াবতী-অখিলেশের জোট সম্পর্কে কোনও মন্তব্য করছেন না। কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা গুলাম নবি আজাদ বলেন, আমরা এখনই প্রতিক্রিয়া জানাব না। রবিবার এসম্পর্কে বিস্তারিত বলব।

Comments are closed.