বুধবার, জানুয়ারি ২৯
TheWall
TheWall

বায়ু দূষণের জেরে অসুস্থ তাঁরা! সরকারের কাছে বড় অঙ্কের ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা মা-মেয়ের

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরিবেশ রক্ষায় লড়ছে সারা বিশ্ব। সে লড়াই খুব বড় বা সংগঠিত না হলেও, নানা প্রান্তের নানা মানুষ দূষণ রুখতে নানা পদক্ষেপ করছেন। কোথাও বা প্লাস্টিক বর্জন হচ্ছে, কোথাও আবার হচ্ছে বৃক্ষরোপণ। কিন্তু এই সবই মূলত বেসরকারি নানা সংগঠনের একক উদ্যোগ। সরকারি ভাবে কড়া হাতে দূষণ নিয়ন্ত্রণে নামতে এখনও কোনও দেশকেই দেখা যায়নি সে ভাবে। দূষণের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে উষ্ণতা, বাড়ছে জীবজগতের বিপদ।

আর এ সবের মধ্যেই দূষণের বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে লড়ছেন প্যারিসের এক মা-মেয়ে। জানা গেছে, বায়ু দূষণ তথা শহরে সার্বিক ক্ষতি এবং তার জেরে তাঁরা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ তুলে প্যারিসের বাসিন্দা ওই মা-মেয়ে ফরাসি সরকারের কাছে প্রায় দেড় কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন!

মঙ্গলবার প্যারিসের মন্ট্রিওল আদালতে চলছিল অদ্ভুত এই মামলার শুনানি। মা-মেয়ে মিলে সরকারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন, তাঁরা বিভিন্ন রকম রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েছেন তীব্র দূষণের কারণে। সরকার কোনও পদক্ষেপ না করার কারণেই এমনটা ঘটেছে। তাঁরা বিচার চান।

তাঁরা দাবি করেন, ২০১৬ সালের শীতকাল থেকে শহরে বায়ুদূষণের মাত্রা ভয়াবহ বেড়ে গিয়েছে। এর ফলে নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা। ৫২ বছরের মায়ের ফুসফুসে সমস্যা দেখা গেছে, ১৬ বছরের কিশোরী মেয়ের হাঁপানি হয়েছে। এই অবস্থা ক্রমেই খারাপ হচ্ছে বলে জানান তাঁরা। দায়ী করেন, তাঁদের বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া অসংখ্য ট্র্যাফিককে। প্রচণ্ড সমস্যার কারণে তাঁরা বাড়িও বদল করতে বাধ্য হয়েছেন বলে দাবি করেন তাঁদের আইনজীবী। অভিযোগ করেন, ফ্রান্সের প্রশাসন দেশের মানুষদের সুরক্ষায় ব্যর্থ।

তাঁরা আরও দাবি করেন, ফরাসি প্রশাসন বর্জ্য নিয়ন্ত্রণে একটুও উদ্যোগী নয়। উদ্যোগী নয় হু হু করে বেড়ে চলা জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণেও। শেষ কয়েক বছরে অসংখ্য মানুষ বাড়ার কারণেই বেড়েছে গাড়ি। গাছ কেটে বানানো হয়েছে বাড়ি। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই বেড়েছে বায়ুদূষণ।

জানা গেছে প্যারিসের এই মা-মেয়ের দায়ের করা মামলাটি প্রথম হলেও, এই একই মামলা দায়েক করতে চলেছেন সারা ফ্রান্সের অসংখ্য মানুষ। কারণ বায়ুদূষণ ও তার কারণে শরীরে বাসা বাঁধা রোগ মহামারীর মতো ছড়াচ্ছে সেখানে।

ফ্রান্সের পরিবেশ আন্দোলনের কর্মীরা বলছেন, এই মামলাটি দূষণ রোধার লড়াইয়ে একটি মাইলস্টোন। মামলা দায়েরকারী মা-মেয়ে জয়ের মুখে দাঁড়িয়ে আছেন। সরকার তাঁদের ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য হবে। বায়ু দূষণের সঙ্গে যে শারীরিক অসুস্থতা সরাসরি সংযুক্ত, তা মেনে নিতে বাধ্য সরকার।

পাবলিক হেল্থ ফ্রান্স এজেন্সির পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি বছর দূষণজনিত ফুসফুসের রোগে এ দেশে অকালমৃত্যু হয় ৪৮ হাজার মানুষের। এত বায়ু দূষণের কারণ খুঁঝতে গিয়ে মেলা তথ্য বলছে, প্রত্যেক দিন প্যারিসে ১১ লক্ষ মানুষ গাড়ি চালান।

এর আগে, গত বছর মে মাসে, দূষণ নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগে ইউরোপিয়ান আদালতে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছিল ছ’টি দেশকে। তাদের মধ্যে একটি ছিল ফ্রান্স। সে অভিযোগের পরেও মোটেও বদলায়নি ফ্রান্স। এবার সে মা-মেয়ের মামলার মুখে হারতে বসেছে।

আরও পড়ুন…

তাতছে বিশ্ব, গলছে বরফ! এভারেস্টের হিমবাহ সরতেই উন্মুক্ত বহু অভিযাত্রীর দেহ!

Share.

Comments are closed.