শনিবার, জুলাই ২০

ম্যাজিক করে জল থেকে উঠে স্ত্রীকে হাত নাড়বেন, বলেছিলেন বাংলার ‘ম্যানড্রেক’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ম্য়াজিক দেখাতে হাত পা বাঁধা অবস্থায় জলে নেমেছিলেন জাদুকর চঞ্চল লাহিড়ী৷ তার পরে নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে গেলেও উঠলেন না। আজ দুপুর পৌনে একটা নাগাদ নাগাদ মিলেনিয়াম পার্কের কাছে গঙ্গার ঘাটে ম্যাজিক দেখাতে গিয়েই ঘটল এই বিপত্তি। পুলিশ তল্লাশি শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত খোঁজ মেলেনি।

জানা গিয়েছে, হুগলির বাসিন্দা চঞ্চল লাহিড়ী ফেয়ারলি ঘাট থেকে লঞ্চে ওঠেন৷ লঞ্চ যখন ২৮ নম্বর পিলারের কাছে, তখন লঞ্চ থেকে ঝাঁপ দেন তিনি৷ জানান, তাঁর হাত-পা-মুখ বাঁধা থাকবে৷ হাওড়া ব্রিজে থাকা ক্রেন দিয়ে তাঁকে লঞ্চ থেকে প্রথমে তোলা হবে৷ তার পরে ওই ক্রেন থেকেই গঙ্গায় ছুঁড়ে ফেলা হবে৷ সেখান থেকে তিনি নিজেই উঠে আসবেন৷ বলাই বাহুল্য, বড়ই ঝুঁকিবহুল ছিল এই ম্যাজিক। তবে সকলেই বিশ্বাস করেছিলেন, কোনও না কোনও ছলে নিশ্চয়ই এমনটা সত্যিই করবেন ম্যাজিসিয়ান!

পরিকল্পনা মতোই ফেয়ারলি ঘাট থেকে মাঝগঙ্গা পর্যন্ত যান চঞ্চল লাহিড়ী৷ হাওড়া ব্রিজের উপরে থাকা ক্রেন তাঁকে তুলেও নেয়৷ এর পরে সেখান থেকে ছুড়ে ফেলা হয় গঙ্গায়৷ মাঝনদীতে তিনি ডুবে যান হাত-পা বাঁধা অবস্থায়৷ তিনি দাবি করেন, দশ মিনিটের মধ্যে জলের উপরে উঠে আসবেন।

জানা গিয়েছে, কলকাতা পুলিশের অনুমতি নিয়েই রবিবার গঙ্গায় ম্যাজিক শো করতে যান চঞ্চল লাহিড়ী। কলকাতার মিলেনিয়াম পার্কে দু’টি লঞ্চ ভাড়া করা হয়। একটি লঞ্চ থেকে ঝাঁপ দেন তিনি। অন্য একটি লঞ্চ থেকে ভিডিওগ্রাফিও করা হচ্ছিল। চঞ্চলবাবু তাঁর স্ত্রীকে হাওড়া ব্রিজের উপর দাঁড়াতে বলেছিলেন। কারণ জল থেকে উঠে তিনি স্ত্রীকে হাত নাড়বেন বলে জানিয়েছিলেন। উল্লেখ্য, চঞ্চল লাহিড়ী (৫৫) নিজেকে জাদুকর ম্যানড্রেক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকেন।

কিন্তু দীর্ঘ সময় কেটে যাওয়ার পরেও তিনি উঠছেন না দেখে, স্থানীয় মানুষজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন৷ কারও কারও মতে, তিনি হাত-পা ছুঁড়ছিলেন নদী থেকে ওঠার জন্য৷ কিন্তু তাঁকে উদ্ধার করা যায়নি৷ শেষমেশ তিনি ডুবে যান বলেই জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা৷

তাঁরাই খবর দেন নর্থ পোর্ট থানায়৷ পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ছুটে যায়৷ নামানো হয় ডুবুরি৷ এখনও চলছে তল্লাশি৷ তবে জানা গিয়েছে, এর আগেও নাকি চঞ্চল লাহিড়ী নামের ওই ব্যক্তি একাধিক বার ম্যাজিক দেখাতে গিয়ে বিপদে পড়েছেন৷

নিজেকে ‘ম্যানড্রেক’ বলে পরিচয় দিয়ে কৌশল করে মানুষকে প্রতারণার অভিযোগও উঠেছে৷ একবার জলের উপর দিয়ে হাঁটার ম্যাজিক তিনি দেখাতে গিয়েছিলেন৷ তাতে কৌশল ফাঁস হয়ে যাওয়ায় প্রায় গণপ্রহারের মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে৷

এর আগে অবশ্য এই ম্যাজিকটি গঙ্গায় করেছিলেন জাদুকর ম্যানড্রেক।মাঝ গঙ্গায় ক্রেনের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে গঙ্গায় নেমে উঠে এসেছেন একাধিক বার। কিন্তু এ বারই হল না। রবিবার সকালে সেই রকমের একটি বিপজ্জনক জাদু ধেখাতে গিয়ে নিখোঁজ হলেন তিনি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যে কোনও মানুষ সর্বাধিক সাড়ে চার মিনিট পর্যন্ত জলের নিচে থাকতে পারেন নিঃশ্বাস না নিয়ে। এমনটা এর আগে চঞ্চল করেওছেন। কিন্তু এই বার বিপত্তি ঘটল। মাঝ গঙ্গায় তলিয়ে গেলেন জাদুকর চঞ্চল লাহিড়ি। এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনও খোঁজ মেলেনি। রিভার পুলিশ কর্মীরা জানান, নদীর জলে জোরালো ‘আন্ডার কারেন্ট ‘ থাকলে অনেক সময়েই তলিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটে।

Comments are closed.