বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

তদারকি করতে গিয়ে বিমানের মধ্যেই মৃত্যু স্পাইসজেট কর্মীর, চাঞ্চল্য কলকাতা বিমানবন্দরে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বিমানের ভিতর তদারকির কাজ করতে গিয়ে মৃত্যু হলো স্পাইসজেটের এক কর্মীর। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কলকাতা বিমানবন্দরে।

জানা গিয়েছে, স্পাইসজেট সংস্থার ওই কর্মী রোহিত পাণ্ডে মঙ্গলবার রাত ১টা নাগাদ এক বিমানে তদারকির কাজ করছিলেন। সেই সময় বিমানের মেন গেটের ল্যান্ডিং গিয়ারে আটকে গিয়ে তাঁর মৃত্যু হয় বলে খবর। বেশ কিছুক্ষণ তাঁর কোনও খবরই পাওয়া যায়নি। তারপর সংস্থার অন্য কর্মীরা বিমানের ভিতর ঢুকতে গেলে রোহিতকে ওই অবস্থায় পান। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে ডাক্তাররা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় কলকাতা বিমানবন্দরে। সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে কিছুক্ষণ বিক্ষোভ দেখান স্পাইসজেটের কর্মীরা। এই ঘটনার পরেই ব্যবস্থা নিয়েছে ডিজিসিএ। কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তার রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে সংস্থাকে। ডিজিসিএ নিজেও এই বিষয়ের তদন্ত করবে বলে খবর। গত সপ্তাহেই বিমানের অব্যবস্থা ও খারাপ ট্রেনিংয়ের অভিযোগে চারটি শোকজ লেটার স্পাইসজেটকে পাঠিয়েছিল ডিজিসিএ। তারপরেই এই ঘটনা ঘটল। এই দুর্ঘটনা স্পাইসজেটের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগকে যে আরও জোরালো করল তা বলা যেতেই পারে।

২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে তদারকি করতে গিয়ে মুম্বই বিমানবন্দদরে এয়ার ইন্ডিয়ার এক কর্মী এভাবেই মারা গিয়েছিলেন। ৫০ বছরের রবি সুব্রহ্মন্যম বিমানের ইঞ্জিনে কাজ করছিলেন। সেই সময় পাইলটরা ইঞ্জিনের সুইচ অন করে দেন। ফলে ভেতরেই আটকে মারা যান রবি। এর ফলে পাইলটদের বরখাস্ত করা হয়েছিল ও এয়ার ইন্ডিয়াকে তার জন্য ক্ষতিপূরণ দিতে হয়েছিল কর্মীর পরিবারকে।

এ ক্ষেত্রেও রোহিতের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে কি না, তা তদন্তের রিপোর্ট এলে তবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ডিজিসিএ।

Comments are closed.