বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১
TheWall
TheWall

পাঁচ কেজি সোনা চুরি গেরস্থের বাড়ি থেকে! কাজের লোককে ক্যানিং থেকে ধরে আনল কলকাতা পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাঁচ কেজি সোনা চুরির কিনারা মাত্র কয়েক ঘণ্টায় করে ফেলল কলকাতা পুলিশ! 
পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ টালিগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ আসে। প্রিন্স গোলাম মহম্মদ শাহ রোডের বাসিন্দা, ৭২ বছরের কেদার সার্বিয়া দাবি করেন, তাঁর বাড়ি থেকে পাঁচ কেজি সোনা চুরি গিয়েছে! পরিচারিকা গঙ্গা হালদারের নামে এফআইআর দায়ের করেন তিনি। অভিযোগ করেন, গয়না ও সোনার বার নিয়ে চম্পট দিয়েছেন পরিচারিকা।
সঙ্গে সঙ্গে তদন্তে নামে পুলিশ। অভিযুক্ত পরিচারিকার নাম ও সম্ভাব্য ঠিকানার সূত্র ধরে তদন্তকারীরা পৌঁছে যান ক্যানিংয়ে। সারা রাত ধরে চলে খোঁজ। বিস্তীর্ণ এলাকায় সারা রাত তল্লাশির পরে, ভোরবেলা আমতলা এলাকা থেকে ধরা পড়েন অভিযুক্ত পরিচারিকা। জামাইয়ের বাড়িতে লুকিয়ে ছিলেন তিনি। সেখান থেকে উদ্ধার হয় চুরি যাওয়া সমস্ত সোনাও।পুলিশ সূত্রের খবর, উদ্ধার হওয়া সামগ্রীর মধ্যে ছিল, চারটি এক কেজির সোনার বার, একটি প্ল্যাটিনামের হিরে বসানো ব্রেসলেট, ছ’টি সোনার বালা, একটি সোনার হার, একটি সোনার লকেট, দু’জোড়া সোনার দুল, দু’টি সোমার নাকছাবি, হিরে বসানো সোনার একটি ছোট ফাঁপা বল।
কিন্তু এই ঘটনার পরে প্রশ্ন উঠেছে, কলকাতা শহরে একটি বাড়ির মধ্যে পাঁচ কেজি সোনা রাখা কতটা যুক্তিসম্মত? পুলিশ জানিয়েছে, এই চুরির ঘটনায় রুজু করা মামলাটিতে এই বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়েছে। আদালতে যা বলার বলবেন সোনার মালিক কেদার সার্বিয়া। তাতে যদি কোনও অসঙ্গতি মেলে, তারও তদন্ত হবে।

Comments are closed.