শুক্রবার, অক্টোবর ১৮

চেকিং এড়িয়ে পালাতে গিয়ে মৌলালিতে ম্যাটাডোরে ধাক্কা বাইকের, পুলিশি তৎপরতায় বাঁচল প্রাণ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোমবার রাতে বেপরোয়া বাইকের ধাক্কায় গুরুতর জখম হয়েছিলেন কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল তপন ওঁরাও। চব্বিশঘণ্টার মধ্যে ফের কলকাতায় বেপরোয়া বাইক চালানোয় দুর্ঘটনা ঘটল। তবে এ বার পুলিশের তৎপরতায় মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচলেন দুই বাইক আরোহী।

জানা গিয়েছে মঙ্গলবার গভীর রাতে নাকা চেকিং চলছিল মৌলালি মোড়ে। পুলিশি নজরদারি এড়িয়ে পালাতে বাইকের গতি বাড়িয়ে দেয় এক বাইক আরোহী। পিছনে বসে ছিলেন আরও একজন। জখম দুজনের নাম আবু সিদ্দিকি ও মহম্মদ সাবির। এসএন ব্যানার্জি রোডে ঢোকার মুখেই মল্লিকবাজারের দিক থেকে আসা একটি ম্যাটাডোরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা মারে বাইকটি। এরপর গুরুতর জখম দু’জনকে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, দুজনেই হেলমেটহীন ছিলেন। মদ্যপ ছিলেন বলেও জানা গিয়েছে। প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা নেই বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। দুই বাইকআরোহীর বিরুদ্ধেই মামলা রুজু করেছে এন্টালি থানার পুলিশ।

কলকাতার রাস্তায় মডেল ঊষসী সেনগুপ্ত নিগ্রগ কাণ্ডের পর থেকেই তৎপর পুলিশ। চলছে নাকা চেকিং। এর মধ্যেই সোমবার রাতে কড়েয়া থানা এলাকায় বেপরোয়া বাইকের ধাক্কায় পুলিশকর্মীর জখম হওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। ঊষসী কাণ্ডের পর কলকাতার নগরপাল অনুজ শর্মা জানিয়েছিলেন, বাইকের দৌরাত্ম্য রুখতে পুলিশ পদক্ষেপ করবে। এর মাঝেই আবার দিনে দুপুরে ঘটে গিয়েছে মহিলা বক্সার সুমন কুমারীকে হেনস্থার ঘটনা। কিন্তু বাইক দৌরাত্ম্য যেন থামছেই না শহরে।

Comments are closed.