মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

খড়দহে বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার দম্পতির দেহ, ডাকাতিতে বাধা দিতেই খুন, অনুমান পুলিশের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল দম্পতির দেহ। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার খড়দহের পানশিলা সাধুর মোড় এলাকায়।

মামার দেওয়া উপহারের ফ্ল্যাটে ২০০৬ সাল থেকে থাকতেন সৌমিত্র কুমার চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী। বেশ কয়েকদিন ধরেই তাঁদের বাইরে বার হতে দেখছিলেন না প্রতিবেশীরা। দরজার বাইরে জমা হচ্ছিল খবরের কাগজ। কিন্তু এ দিন পচা গন্ধ পেয়ে পুলিশে খবর দেন প্রতিবেশীরা। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে দম্পতির দেহ উদ্ধার করে। জানা গিয়েছে দু’জনেরই বয়স মধ্য চল্লিশ।

পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। পেশায় গৃহশিক্ষক ছিলেন সৌমিত্রবাবু। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, নিঃসন্তান দম্পতিকে খুন করা হয়েছে। তারা জানিয়েছে, ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে ঢোকার পর ডাইনিং-এ কিছু দেখতে পাওয়া যায়নি। একটি ঘর বাইরে থেকে তালাবন্ধ ছিল। সেই তালা ভেঙে ঘরে ঢুকতেই দেখা যায় সৌমিত্রবাবুর দেহ ঝুলছে। স্ত্রীর দেহ পাওয়া যায় খাটের নীচ থেকে।

পুলিশ জানিয়েছে আলমারি থেকে খাটের বক্স, গোটা ঘর ছিল লণ্ডভণ্ড। মনে করা হচ্ছে, লুঠ বা ডাকাতিতে বাধা দিতে গিয়েই এই খুনের ঘটনা ঘটেছে। তবে কী ভাবে খুন করা হয়েছে সে ব্যাপারে পুলিশ এখনও নিশ্চিত নয়।

Comments are closed.