সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩

নাট্য অ্যাকাডেমির সভাপতির পদ ছাড়লেন মনোজ মিত্র, তাঁর দাবি শারীরিক কারণেই ইস্তফা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কয়েকদিন আগেই কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের কমিটি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। কমিটি থেকে শেষ পর্যন্ত বেরিয়ে গিয়েছেন অপর্ণা সেন এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এ বার পশ্চিমবঙ্গ নাট্য অ্যাকাডেমির সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা তথা নাট্যকার মনোজ মিত্র। দু’সপ্তাহ আগে গঠিত হয়েছিল এই কমিটি। বৃহস্পতিবার তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরে ইস্তফার চিঠি পাঠিয়ে দেন মনোজবাবু।

চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান পদে রাজ চক্রবর্তীকে বসানো নিয়ে প্রকাশ্যে ক্ষোভ উগরে দেন অপর্ণা। ক্ষোভের কথা চেপে রাখেননি প্রসেনজিৎও। তখন থেকেই আলোচনা চলছিল। প্রশ্ন উঠছিল, তাহলে কি এই বিশিষ্ট মানুষরা অস্বস্তি বোধ করছেন? মর্যাদা পাচ্ছেন না? এ দিন মনোজবাবুর পদত্যাগের পর সেই প্রশ্নই উস্কে দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। তিনি প্রেস বিবৃতি দিয়ে বলেন, “আমাদের মনে হয়, কোথাও হয়ত এইসব বিদগ্ধ ব্যক্তিরা যথাযথ সম্মান ও গুরুত্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আমরা মনে করি, সুস্থ ও স্বাধীনভাবে বাংলা শিল্প- সংস্কৃতি চর্চাকে চালু রাখার স্বার্থে এইসব প্রকৃত বিদগ্ধজনেদের যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের ব্যাপারে রাজ্য সরকারের আরো সচেতন ও উদ্যোগী হওয়া প্রয়োজন।”

যদিও নিজের পদত্যাগের ব্যাপারে শারীরিক কারণের কথাই বলেছেন মনোজবাবু। দ্য ওয়াল-এর তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “গত এক বছর ধরে আমি অসুস্থ। হাঁটুর ব্যথা এবং বার্ধক্যজনিত অসুখে বাড়ির মধ্যেই ভাল করে হাঁটাচলা করতে পারি না। গাড়িতে কোথাও গেলেও ধকল হয়। সে কারণেই ইস্তফা দিয়েছি।” দ্য ওয়াল-এর প্রতিনিধিকে তিনি আরও বলেন, “আমি সবাইকে বলছি আমি অসুস্থ। আর সাংবাদিকগুলো আমায় বলছে কোনও রাজনৈতিক কারণ আছে কি না। শুধু আপনি সেটা জিজ্ঞাসা করলেন না।” বেশ কিছুদিন আগে নাট্য অ্যাকাডেমির কমিটি থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন বিভাস চক্রবর্তী। এ বার সেই তালিকায় সংযোজিত হল মনোজ মিত্রর নাম।

সম্প্রতি নাট্য অ্যাকাডেমির ৪৪ জনের কমিটির তালিকায় হরিমাধব মুখোপাধ্যায়, ঊষা গঙ্গোপাধ্যায়দের নাম ছিল না। তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। দিন দশেক আগে সংবাদমধ্যমে মনোজবাবু জানিয়েছিলেন, কাদের ওই তালিকায় রাখা হবে তা তিনি জানতেন না। তাঁকে সে ব্যাপারে কিছু জিজ্ঞাসাও করা হয়নি। কিন্তু বর্ষীয়ান হরিমাধববাবু এবং ঊষাদেবীর নাম বাদ যাওয়ায় সংবাদমাধ্যমেই ক্ষোভের কথা জানিয়েছিলেন মনোজ মিত্র।

Comments are closed.