বুধবার, আগস্ট ২১

হাতকাটা দেবার নেতৃত্বে হামলা, আক্রান্ত বাম ছাত্রনেতারা  

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কয়েকদিন আগেই যে সুরেন্দ্রনাথ কলেজ উত্তপ্ত হয়েছিল ‘ভর্তি সিন্ডিকেট’ নিয়ে, এ বার সেই কলেজের গেটের বাইরেই রক্ত ঝরল বেশ কয়েকজন বাম ছাত্র নেতার। অভিযোগের তির শাসক দলের ছাত্র সংগঠনের দিকে।

কয়েকটি বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের যৌথ মঞ্চের একটি কনভেনশনের লিফলেট বিলিকে কেন্দ্র করে প্রথমে বচসার সূত্রপাত। পরে তা গড়ায় মারামারি পর্যন্ত। ইয়ংবেঙ্গলের সম্পাদক দেবর্ষি চক্রবর্তী , রিতম দাস, মৈনাক মাইতি সহ মোট পাঁচজন ছাত্র এই ঘটনায় আহত হন। তাঁদের নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

ইয়ং বেঙ্গল, কালেক্টিভ, ছাত্র ব্লক, আইসা, পিডিএসএফ সহ বেশ কয়েকটি বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের যৌথ মঞ্চ আগামী ৩১ অগস্ট সুবর্ণ বণিক সমাজ হলে শিক্ষার অধিকার রক্ষা কনভেনশনের ডাক দিয়েছে। ইয়ংবেঙ্গলের নেতা প্রসেনজিৎ বসু বলেন, “এই কনভেনশনের দাবি গুলি নিয়ে গত এক সপ্তাহ ধরেই কলকাতার বিভিন্ন কলেজে প্রচার চলছে। আজকেও ছাত্র-ছাত্রীরা সুরেন্দ্রনাথ কলেজের গেটের বাইরে গিয়ে লিফলেট বিলি করছিল। তখনই স্থানীয় দুষ্কৃতী হাত কাটা দেবার নেতৃত্বে টিএমসিপি’র কর্মীরা হামলা চালায়।”

ওই কনভেনশনে বক্তব্য রাখার কথা জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আয়েশা কিদোয়াই, অভিনেতা কৌশিক সেন এবং যাদবপুরের অধ্যাপক সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়ের। ‘আক্রান্ত’ ছাত্রদের তরফে জানানো হয়েছে- “ওরা এসেই বলে, এখানে এইসব লিফলেট বিলি করা যাবে না। এক কথায়, দু’কথায় মারতে শুরু করে। বাদ দেওয়া হয়নি ছাত্রীদেরও।” মাথা ফেটেছে রিতম এবং মৈনাকের । দেবর্ষির ডান চোখের নীচে আঘাত লেগেছে।

যদিও শাসক দলের ছাত্র সংগঠনের তরফে এই হামলার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

Leave A Reply