মঙ্গলবার, মার্চ ১৯

Breaking: মাসে মাসে মেয়ের জন্য ৪০ হাজার টাকা দিতেই হবে শোভনকে, নির্দেশ হাইকোর্টের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের হাইকোর্টে ধাক্কা খেলেন কলকাতা কর্পোরেশনের প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। খোরপোশ মামলায় হাইকোর্ট জানিয়ে দিল, মেয়ের জন্য শোভনবাবুকে প্রতিমাসে ৪০ হাজার টাকা দিতেই হবে। আগেই আদালত এই নির্দেশ দিয়েছিল। বলা হয়েছিল ব্যাপারটা নিশ্চিত করতে নিম্ন আদালতকে নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। কিন্তু এরপর শোভন চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী আদালতে হলফনামা দাখিল করে জানান, শোভনবাবুর এখন যা আর্থিক অবস্থা তাতে তিনি প্রতি  মাসে এই টাকা দিতে পারবেন না। এ দিন সে সব খারিজ করে দিয়ে আদালত জানিয়ে দিয়েছে, মেয়ে সুহানির জন্য খোরপোশ দিতেই হবে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে।

শোভন চট্টোপাধ্যায় তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা করেছেন। সেই মামলা চলছে প্রায় বছর দেড়েক হলো। শোভনবাবুও পৈতৃক ভিটে ছেড়ে এখন গোলপার্কের আবাসনে থাকেন। সেই মামলায় বিপুল খরচ হচ্ছে বলে, পাল্টা মামলা দায়ের করে শোভন-পত্নী রত্না দাবি করেছিলেন ১৫ লক্ষ টাকা দিতে হবে। সেই মামলা এখনও আদালতে ঝুলছে। হতে পারে সামনের সপ্তাহেই হবে সেই মামলার শুনানি। কিন্তু এ দিনের আবেদন খারিজ শোভনের উপর চাপ বাড়াবে বলেই মনে করছেন অনেকে।

শোভন-রত্নার সংঘাত এতদিন ঢাকা চাপা থাকলেও, গত মাসে তা একেবারে রাস্তায় নেমে আসে। একে অপরের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তোলেন। শোভন-বৈশাখী সম্পর্ক নিয়ে এমনিতেই কানাঘুষো ছিল, রত্না তা আরও বাড়িয়ে দেন। পাল্টা শোভন বলেন, চিকু নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে প্রেম করেন রত্না। বৈশাখীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে ময়দানে নামেন শোভনের শ্বশুর তথা মহেশতলার তৃণমূল বিধায়ক দুলাল দাস। পাল্টা রত্নার বাবাকে আক্রমণ করেন শোভনের ‘শুভানুধ্যায়ী’ বৈশাখীও। এতদিন শোভন যতবার মুখ খুলেছেন ততবার বলেছেন, তাঁকে আইনি সাহায্য করেন বৈশাখী। বিবাহ বিচ্ছেদের মামলায় ডেট পড়লেই শোভনের সঙ্গে যান বৈশাখী। কিন্তু হাইকোর্টে জিততে পারলেন না শোভন। এখন দেখার স্ত্রীর মামলার খরচের ক্ষেত্রে আবার শোভনবাবুকে হারতে হয় কিনা। নাকি সেই মামলায় মুখ রক্ষা হবে প্রাক্তন মেয়রের!

Shares

Comments are closed.