শুক্রবার, জানুয়ারি ১৭
TheWall
TheWall

#Breaking: সল্টলেকের বৈশাখী মলে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড, আতঙ্ক ছড়ালো আবাসনেও

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো : দুর্গাপুজোর পঞ্চমীতে সল্টলেকের এএমপি বৈশাখী মলে বিধ্বংসী আগুন লেগেছে। এই আগুন লাগার ফলে আতঙ্ক ছড়ায় মলে আসা ক্রেতা ও দোকানদারদের মধ্যে। আগুনের জেরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে মলের পাশে থাকা আবাসনেও।

মলের বেসমেন্টে ছিল পার্কিং প্লাজা। আগুন লেগেছে সেখানেই। বেসমেন্ট থেকে শোনা যাচ্ছে বিস্ফোরণের শব্দ। দমকলের কর্মীরা বেসমেন্টে পৌঁছতেই পারছেন না। মনে করা হচ্ছে, যেহেতু পার্কিং প্লাজা সেহেতু আগুন আরও বড় আকার নিতে পারে। আতঙ্ক ছড়িয়েছে পাশের বৈশাখী আবাসনেও। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলেছে বিরাট পুলিশ বাহিনী। এই মুহূর্তে আগুন নেভানোর কাজ করছে দমকলের ৯টি ইঞ্জিন। আসছে দমকলের আরও ইঞ্জিন।

এই শপিং মলের উপরেও রয়েছে আবাসন। খালি করে দেওয়া হয়েছে শপিং মলটি। সাত তলা এই বহুতলে থাকা বাসিন্দাদেরও নীচে নেমে আসতে বলা হয়েছে। শপিং মলের কাছেই রয়েছে একটি পুজো মণ্ডপ। আগুন প্রথম তাদের চোখেই পড়ে। বেসমেন্টের ভিতরে অনেক গাড়ি রয়েছে। কয়েকটি গাড়িত আগুন লেগে গিয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

ঘটনার খবর পেয়েই এসে পৌঁছেছেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু। সেখানে দাঁড়িয়ে থেকে গোটা ঘটনা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন তিনি। কিন্তু বেসমেন্টে কেউ ঢুকতে না পারায় বেগ পেতে হচ্ছে দমকল কর্মীদের। বেসমেন্টে কেউ আটকে আছে কিনা তাও বোঝা যাচ্ছে না। অন্য কোনও পথে বেসমেন্টে ঢুকে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা যায় কিনা, তার চেষ্টা চালাচ্ছেন দমকল কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পঞ্চমী হওয়ায় মলে ভালোই ভিড় ছিল। অনেকেই শেষ মুহূর্তের কেনাকাটা করছিলেন। হঠাৎ করেই মলের ফায়ার অ্যালার্ম বেজে ওঠে। সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তারক্ষীরা সবাইকে বাইরে বের করে আনেন। মলের ভিতরে থাকা দোকানের কর্মীরাও বাইরে বেরিয়ে আসেন। তার মধ্যেই ধোঁয়ায় দু-একজন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলেও খবর। এই ঘটনায় সবাই খুব আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

 

 

Share.

Comments are closed.