মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩

বৈঠকে কেন গরহাজির রাজীবকুমার, বললেন মুখ্যমন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বৃহস্পতিবার মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সহ কমিশনের ফুল বেঞ্চ এসেছিলেন বাংলায়। বৈঠকে ডেকেছিলেন রাজ্যের সব জেলার পুলিশ সুপারদের। কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকেও ডাকা হয়েছিল ওই বৈঠকে। কিন্তু ওই বৈঠকে গরহাজির ছিলেন নগরপাল। রাজীব কুমারের অনুপস্থিতি নিয়ে জল্পনা তৈরি হয় প্রশাসনিক এবং রাজনৈতিক মহলে। শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাজেটের পর সাংবাদিক বৈঠকের সময় সে ব্যাপারটি খোলসা করে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজীবকুমারের অনুপস্থিতি নিয়ে এ দিন মমতা বলেন, “যে পদে যে পুলিশ আধিকারিক ৩ বছর একটানা রয়েছেন, তাঁকে নিয়মানুযায়ী কমিশন সরিয়ে দেবে।” ভোটের আগে যে রাজীবকুমারের বদলে অন্য পুলিশ পুলিশকর্তা কলকাতার কমিশনার হচ্ছেন তা এ দিন একপ্রকার বলেই দিলেন দিদি।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বৈঠকে অনুপস্থিতির কারণ জানতে চেয়ে রাজীবকুমারকে চিঠি দিয়েছে কমিশন। নির্বাচন ঘোষণা হলেই নির্বাচন-বিধি বলবৎ হয়ে যাবে দেশে। পুলিশ বিভাগের সমস্ত স্তরে রদবদল করবে কমিশন। কয়েকদিন আগেই কৃষ্ণনগরের জনসভা থেকে বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেছিলেন, তিন বছর এক থানায় থাকলে সেই অফিসারকে সরতে হবে। এক জেলায় থাকলেও বদলি করা হবে অন্য জেলায়। পর্যবেক্ষকদের মতে, এ দিন মুখ্যমন্ত্রী ঠারেঠোরে বোঝাতে চান, যেহেতু সরেই যাবেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার তাই আর তিনি সে দিন আর ওই বৈঠকে যাননি।

তবে রাজীবকুমারের বদলে লালবাজারের হট সিটে কে বসেন এখন সে দিকেই চোখ সবার।

Shares

Comments are closed.