সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন সৌমিত্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হুইলচেয়ারে চেপে রুবি জেনারেল হাসপাতালের চৌকাঠ পার হলেন। দু’পাশ থেকে হাত ধরলেন ডাক্তার এবং হাসপাতালের কর্মীরা। গাড়িতে উঠেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মুখে দেখা গেল হাসি। নিউমোনিয়ার ধকল কাটিয়ে ‘ফেলুদা’ এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। রুবি হাসপাতালের তরফে জানানো হল, তাঁর শারীরিক অবস্থা পুরোপুরি স্থিতিশীল। চিকিৎসকদের আশা, দিন কয়েক বিশ্রাম নিয়ে আবার কাজে ফিরতে পারবেন তিনি।

১৪ অগস্ট, বুধবার নিজের বাড়িতেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ৮৪ বছরের অভিনেতা। চরম শ্বাসকষ্ট নিয়ে তাঁকে ভর্তি করা হয় রুবি জেনারেল হাসপাতালে। অবস্থা এতটাই গুরুতর ছিল, যে সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় আইসিইউতে। তৈরি হয় মেডিক্যাল টিম। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, সৌমিত্রবাবুর চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন ডঃ সুনীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডঃ অরিন্দম মুখোপাধ্যায় এবং ডঃ দিব্যদীপ মুখোপাধ্যায়।

বুধবার বেলার দিকে সাংবাদিক বৈঠক করে রুবির চিকিৎসকরা জানান, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাঁর শ্বাসের সমস্যাও অনেকটাই কমেছে। তিনি যখন ভর্তি হয়েছিলেন, তাঁর অ্যাকিউট নিউমোনিয়া ধরা পড়েছিল। মাল্টি অর্গ্যান ডিস ফাংশন শুরু হয়ে গিয়েছিল। শ্বাসের সমস্যা বেড়েছিল। তবে এখন তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ। অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স শেষ করা হয়েছে। আগামী দিনেও তিনি সুস্থ ভাবে চলাফেরা, কাজকর্ম করতে পারবেন। রুবি হাসপাতালের ডেপুটি ম্যানেজার সুবীর দে বলেছেন, “১৪ অগস্ট যখন প্রথম খবরটা শুনেছিলাম, বাকি  শহরবাসীর মতো আমরাও ভেঙে পড়েছিলাম। আমাদের আইকন, লেজেন্ড সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের চিকিৎসা হয়েছে রুবি হাসপাতালে। এখন উনি সুস্থ। আগামী দিনে আরও ভালো থাকুন, এই কামনা করি। ”

কার্ডিওলজিস্ট ডঃ সুনীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘অরিন্দম মুখোপাধ্যায় এবং ডঃ দিব্যদীপ মুখোপাধ্যায়ের চিকিৎসায় খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠেছেন প্রবীণ অভিনেতা। রুবির ডাক্তাররা মগজাস্ত্র প্রয়োগ করে ওনার সঠিক চিকিৎসা করেছেন। না হলে এই বয়সে নিউমোনিয়া চেপে বসলে, তার থেকে ব্রেন ড্যামেজ, কিডনি ফেলিওরের মতো সমস্যা হতে পারত। ’’

Comments are closed.